ছাত্রদের হয়রানি বন্ধ ও গ্রেফতারকৃতদের মুক্তি দিন: এম রহমত আলী

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিসের কেন্দ্রীয় সভাপতি এম রহমত আলী বলেছেন, নিরাপদ সড়কের দাবিতে ছাত্রদের আন্দোলনে দেশের মানুষের সমর্থন ছিল। ছাত্ররা দেখিয়ে দিয়েছে যে, গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরাও লাইসেন্সবিহীন দেশের আইন না মেনে গাড়ি চালিয়ে যাচ্ছে। ছাত্রদের আন্দোলনের মুখে সরকার নিরাপদ সড়কের জন্য কঠোর আইন করতে বাধ্য হয়েছে। কিন্তু এখন অনেক স্থানে আন্দোলনকারী ছাত্রদের অহেতুক হয়রানি করা হচ্ছে এবং গ্রেফতারও করা হয়েছে। তা কোনোভাবেই কাম্য নয়। তিনি হয়রানি বন্ধ ও গ্রেফতারকৃত ছাত্রদের মুক্তি দিতে সরকারে প্রতি আহবান জানান।

তিনি আজ বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্র মজলিসের কেন্দ্রীয় প্রতিনিধি পরিষদের বার্ষিক অধিবেশনে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

পুরানা পল্টনস্থ দারুল খিলাফাহ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত অধিবেশনে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্নমহাসচিব মাওলানা জালালুদ্দীন আহমদ, সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় অফিস ও বায়তুলমাল সম্পাদক মাওলানা আজিজুর রহমান হেলাল, সাবেক কেন্দ্রীয় সভাপতি ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় সহ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মাওলানা হারুনুর রশীদ ভূইয়া, সাবেক ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস ঢাকা মহানগর সহ-সাধারণ সম্পাদক মুফতি আব্দুল মুমিন, ছাত্র মজলিসের কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষণ সম্পাদক সোহাইল আহমদ, বায়তুলমাল সম্পাদক মুহাম্মদ আতাউল্লাহ, অফিস ও প্রচার সম্পাদক মুহাম্মদ উবায়দুর রহমান, সিলেট বিভাগীয় তত্ত্বাবধায়ক মুহাম্মদ ফেদাউল হক, ঢাকা মহানগর উত্তর সভাপতি মুহাম্মদ সাদিক সালিম, নরসিংদী জেলা সভাপতি খালেদ সাইফুল্লাহ, মৌলভীবাজার জেলা সভাপতি সালাহ উদ্দীন সাকি।

অধিবেশনে ক্যাম্পাসে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ রক্ষায় কার্যকর পদক্ষেপ, শিক্ষার উপকরণ ও দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি রোধ, দারুল উলুম দেওবন্দে বাংলাদেশী ছাত্রদের পড়ালেখার সুযোগদান, কওমী সনদের স্বীকৃতির আইন জাতীয় সংসদে পাশসহ সাতটি প্রস্তাব গৃহীত হয়।