মুখের ঘা হওয়ার কারণ ও প্রতিকার

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | লাইফস্টাইল ডেস্ক 



মুখের ভেতরে ঘা হলে তা বিরক্তির কারণ হয়ে দাঁড়ায়। নিজের পছন্দের, কোনো খাবারই তখন খাওয়া যায় না । কিছু খেলেই মুখের ভিতরটা জ্বলে ওঠে বা ব্যথা করে ।

মুখের ঘা হলে তা সারতে খানিক সময় লাগে। কারণ মুখের ভেতরে থাকা ব্যাকটেরিয়া ঘা হওয়া জায়গাটিকে সারিয়ে তুলতে বাধা দেয়। ফলে অনেক সময় তা সারতে সপ্তাহ বা তার চেয়ে বেশি সময় লেগে যেতে পারে।

আর যতক্ষণ না ঘা সারছে, ততক্ষণ শুকনো হোক বা তরল, কোনো কিছু খাওয়াই দুরূহ হয়ে ওঠে। আর তা সারাতে গেলে সবচেয়ে প্রথমে মুখের ভিতরের অংশ ব্যাকটেরিয়ার প্রভাবমুক্ত করতে হবে।

নানা কারণে মুখের ভিতরে ঘা হতে পারে। অপুষ্টি, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হওয়া, দুর্বল স্বাস্থ্য, কিছু নির্দিষ্ট খাবারের কারণে এগুলি হয়। এর থেকে বাঁচবেন কোন ঘরোয়া উপায় অবলম্বন করে তা জেনে নিন।

মুখে ঘা হওয়ার কারন-

১)ভিটামিন, আয়রন স্বল্পতা। যেমন ভিটামিন বি৬, ভিটামিন বি১২ অথবা অন্য কোন ভিটামিন।

২) মুখের মাড়ি আঘাতগ্রস্ত হলে। জোরে জোরে দাঁত ব্রাশ করলে।

৩) ধূমপান, নেশা জাতীয় জিনিস,পান,মদ খেলেও মুখে ঘা হয়।

৪) যাদের এইডস, ডায়াবেটিস, ক্যানসার আছে তাদের হয়।

৫) রাতে ঘুম না হলে, অনেক বেশি দুশ্চিন্তা করলে মুখে ঘা হতে পারে।

৬) বংশ গত কারনেও মুখের ভিতর আলসার হয়।

৭) মুখে অ্যালার্জি থাকলেও ঘা হয়।

৮) ঠাণ্ডা লাগলে মুখে ঘা হতে পারে।

ওষুধ ছাড়াও ঘরোয়া কিছু উপায়ে এই ঘা ভাল করা সম্ভব।

লবণ
এক কাপ গরম পানিতে এক চিমটি লবণ ফেলে কুলকুচি ও গার্গল করুন। এতে ঘা হওয়া জায়গাটি তাড়াতাড়ি সেরে উঠবে। খাওয়ার আগে কুলকুচি করলে বেশি ফল পাবেন।

হলুদ
হলুদ গুঁড়ো নিয়ে তাতে সামান্য মধু মিশিয়ে সেই মিশ্রণ মুখের ভেতরে হওয়া ঘা-এ লাগান।

টমাটো
খাবারের সঙ্গে কাঁচা টমাটো খাওয়া অভ্যাস করুন। কয়েক দিন খেলেই মুখের ভেতরের ঘা সেরে যাবে।

অ্যালোভেরা
অ্যালোভেরার রস মুখের ভেতরে লাগাতে পারেন। এতে আরাম হবে ও ঘা সেরে যাবে।

ধনে পাতা
ধনে পাতা পানিতে ফুটিয়ে সেই পানি দিয়ে কুলকুচি করুন। দিনে কয়েকবার করে করলে আরাম পাবেন।

তুলসি পাতা
তুলসির পাতায় অনেক ও্ষধি গুণ থাকে। মুখে ঘা হলে কয়েকটি তুলসির পাতা চিবিয়ে নিন। তুলসি পাতার রসে ঘা সেরে যাবে।

পানি দিয়ে গার্গল
প্রথমে গরম পানি গার্গল করে সঙ্গে সঙ্গে ঠাণ্ডা পানিতে গার্গল করতে পারেন। এই টোটকা কাজে দেবে। কয়েকবার পাল্টে পাল্টে করলে উপকার পাবেন।

এছাড়াও আরও কিছু টিপস
১) বাইরের পানীয় থেকে বিরত থাকা। মসলা যুক্ত খাবার পরিহার করা।

২) রাতে কমপক্ষে ৮ ঘণ্টা ঘুমান।

৩) ভিটামিন সাপ্লিমেন্ট নেওয়া।

৪) নরম দাঁত ব্রাশ ব্যবহার করা, মুখে কোন চাপ না দেওয়া।

৫) প্রতিদিন টক দই খাবেন।



Notice: Undefined index: email in /home/insaf24cp/public_html/wp-content/plugins/simple-social-share/simple-social-share.php on line 74