জানুয়ারি ১৯, ২০১৭

ইসলামের উত্থানকে ঠেকাতে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালানো হচ্ছে: খেলাফত মজলিস

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

2319ad08fdaeবিশ্বব্যাপী ইসলামের উত্থানকে ঠেকাতে পরিকল্পিতভাবে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালানো হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন, খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের।

তিনি বলেন, ইসলাম হচ্ছে বর্তমান দুনিয়ার সবচেয়ে প্রসারমান আদর্শ। ইমলামের সুমহান আদর্শকে কলুষিত করার জন্যে ইসলামের নামে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনা করা হচ্ছে। এটা ইসলামের বিরুদ্ধে এক সুগভীর ষড়যন্ত্রের অংশ।

এ ইস্যুকে ব্যবহার করে নিয়মতান্ত্রিক ইসলামি আন্দোলনকে স্তব্ধ করার চেষ্টা হচ্ছে। অযাচিতভাবে মাদ্রাসা, মসজিদ, খুতবার উপর নিয়ন্ত্রন আরোপের চেষ্টা হচ্ছে। সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে এ ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করতে হবে।

খেলাফত মজলিস আহুত সন্ত্রাস বিরোধী দিবস উপলক্ষে ঢাকা মহানগরী আয়োজিত মতবিনিময়সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। আজ শনিবার বিকাল ৪টায় বিজয়নগরস্থ মজলিস মিলনয়তনে ঢাকা মহানগরী সভাপতি শেখ গোলাম আসগরের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদ মাওলানা আজিজুর হকের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় বক্তব্য পেশ করেন খেলাফত আন্দোলনের যুগ্মমহাসচিব মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের নায়েবে আমীর মাওলানা মোহাম্মদ শওকত হোসেন, বাংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভূইয়া, নেজামে ইসলাম পার্টির যুগ্মমহাসচিব মুক্তিযোদ্ধা মাওলানা শওকত আমিন, খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় প্রশিক্ষন অধ্যাপক আবদুল হালিম, ইসলামী ঐক্য আন্দোলনের সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা সাখাওয়াত হোসাইন, ইসলামিক পার্টির যুগ্মমহাসচিব মাহমুদুল হাসান, খেলাফত মজলিস নেতা মাওলানা তোফাজ্জল হোসেন মিয়াজী, হাফেজ মাওলানা নূরুল হক, জহিরুল ইসলাম, খন্দকার সাহাব উদ্দিন আহমদ তাওহিদুল ইসলাম তুহিন প্রমুখ।

ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেন, আজকে দেশের শিক্ষা ব্যবস্থাকে সেক্যুলার করার চেষ্টা করা হচ্ছে। কিন্তু শিক্ষাকে ইসলাম বিহীন করলে দেশে সন্ত্রাস কমবে না বরং বাড়বে। যারা ইসলাম, ইসলামী মূল্যবোধ ও আলেমদের বিরুদ্ধে কথা বলে তাদের থামাতে হবে।

খেলাফত আন্দোলনের যুগ্মমহাসচিব মাওলানা মজিবুর রহমান হামিদী বলেন, ঢাকার গুলশান বা শোলাকিয়ায় যারা হামলা করেছে তারা ইসলামের কেউ না। যারা ইসলামকে কোনঠাসা করতে চায় তারাই সাধারণ মানুষকে হত্যা করছে। আমাদেরকে সন্ত্রাস-উগ্রবাদ নির্মুলে ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা চালাতে হবে। কিন্তুঅনেকেরই টার্গেট হচ্ছে ইসলাম নির্মুল করা। তিনি সরকারের উদ্দেশ্যে বলেন, ইমাম-খতিবদের সরকারের খুৎবা শিখানোর প্রয়োজন নেই। যেখানে নামাজ হয় না সেখানে ইসলামের খুৎবা চালু করুন।

বাংলাদেশ ন্যাপের মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া বলেন, চলমান সংকটে বিরোধী দলসমূহের পক্ষ থেকে জাতীয় ঐক্যের ডাক দেয়া হলো। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী বললেন জাতীয় ঐক্য হয়ে গেছে। দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগণ বা তাদের প্রতিনিধি ছাড়া জাতীয় ঐক্য হতে পারে না।