বাংলাদেশ বিরোধী বক্তব্য দিলেন রোহিঙ্গা মুসলিম গণহত্যার খলনায়িকা সুচি

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | আন্তর্জাতিক ডেস্ক


মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর চালানো গণহত্যা-নির্যাতনের মুখে গত বছর আগস্টের শেষ সপ্তাহে যে সাত লাখেরও বেশি রোহিঙ্গা মুসলিম পালিয়ে বাংলাদেশে ঢুকেছে, এক বছরেও তাদের প্রত্যাবাসন শুরু না হওয়ার জন্য বাংলাদেশকে দায়ী করেছেন গণহত্যার খলনায়িকা মিয়ানমারের নেত্রী অং সান সূচি।

সম্প্রতি সিঙ্গাপুরে এক সফরে গিয়ে বক্ততা দেন সুচি। সেখানে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর চালানো গণহত্যা-নির্যাতনের সমর্থনে কথা বলেন তিনি।

একই বক্তব্যে তিনি এ সমস্যা সমাধানের প্রধান বাধা বাংলাদেশ বলে উল্লেখ করেন।

সুচি বলেন, “মিয়ানমার শরণার্থীদের নিতে প্রস্তুত, তাদের পুনর্বাসনের জন্য জায়গাও ঠিক হয়ে গেছে, কিন্তু তাদের পাঠানোর দায়িত্ব মূলত বাংলাদেশের। তাদেরকে ফেরত পাঠাতে হবে বাংলাদেশকে, আমরা শুধু তাদের সীমান্তে স্বাগত জানাবো। কত দ্রুত এই প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হবে তা নির্ভর করছে বাংলাদেশের ওপর।”

এদিকে, সুচির এই বক্তব্যে তীব্র ক্ষোভ এবং বিস্ময় প্রকাশ করেছেন রোহিঙ্গা শরণার্থী প্রত্যাবাসন বিষয়ক কমিশনার আবুল কালাম।

তিনি বলেন, “তার মতো একজন নেতার মুখ থেকে এ ধরণের বক্তব্য শুনে আমি দুঃখিত হলাম। প্রত্যাবাসনে বিলম্ব হওয়ার জন্য বাংলাদেশকে দায়ী করার সত্যের আরেকটি অপলাপ।”

আবুল কালাম আরো বলেন, “গত বছর নভেম্বরে প্রত্যাবাসন নিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে বাংলাদেশের যে চুক্তি হয়েছে, বেশ কিছু “অবশ্য করণীয়” শর্ত রয়েছে। যেমন চুক্তিতে বলা আছে- রোহিঙ্গারা যে গ্রাম বা বাড়ি ছেড়ে পালিয়ে এসেছে, তাদেরকে সেখানেই জায়গা করে দিতে হবে, একান্তই তা সম্ভব না হলে, নিকটবর্তী জায়গায় বা তাদের পছন্দমত কোনা জায়গায় তাদের থাকার ব্যবস্থা করে দিতে হবে। ফেলে আসা জমিজমা, বাড়ি, সম্পদ ফেরত দিতে হবে। সবচেয়ে বড় কথা পূর্ণ নিরাপত্তা নিয়ে তাদের মনে ভরসা তৈরি করতে হবে, কিন্তু এগুলো কিছুই করা হয়নি।”


উৎস, বিবিসি


Notice: Undefined index: email in /home/insaf24cp/public_html/wp-content/plugins/simple-social-share/simple-social-share.php on line 74