নোয়াখালীতে পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে নিজ স্ত্রীকে হত্যার অভিযোগ

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | অারিফ সবুজ


দিলরুবা আক্তার সালমা

নোয়াখালীতে এক পুলিশ কনস্টেলের স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে সুধারাম থানা পুলিশ। রোববার দুপুরে শহরের একটি প্লট থেকে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে পরে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরণ করে পুুুুলিশ।

জানা গেছে, লহ্মীপুর জেলার রামগতি উপজেলার বাসিন্দা ও নোয়াখালীর পুলিশ কনস্টেবল তাজবিত হোসেন রাজিব গত ৫ বছর আগে হাতিয়া থানায় কর্মরত অবস্থায় হাতিয়ার চরকিং ইউনিয়নের গামছা খালী গ্রামের সোলাইমান মিয়ার ৮ম শ্রেণির ছাত্রী দিলরুবা আক্তার সালমার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে ২ জনের নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে বিবাহ হয়। পরে রাজিব বদলী হয়ে জেলা হেডকোয়ার্টারে আসলে মাইজদী নুতন বাস স্টেশনের কাছে বাসা ভাড়া নিয়ে তারা বসবাস করে আসছিল। এরই মাঝে তাদের একটি কন্যা সন্তান হয়। তার বর্তমান বয়স ৪ বছর।

এব্যাপারে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে তাকে গলাটিপে হত্যার অভিযোগ করে নিহতের ভাই হাছান বলেন, রাজিব প্রতিনিয়ত তার বোনকে নির্যাতন করতো। রবিবার সকালে রাজিব তার বোন আত্মহত্যা করেছে বলে তাকে খবর দেয়। পরে হাসপাতালের মর্গে গিয়ে দেখি তার লাশ পড়ে আছে।

সুধারাম মডেল থানার ওসি আনোয়ার হোসেন প্রাথমিকভাবে ধারনা করে বলেন, স্বামী-স্ত্রী ঝগড়া হয়েছে। পরে স্ত্রী ভেতরের দিক থেকে দরজা লক করে আত্মহত্যা করতে পারে ।

অন্যদিকে পরিবারের পক্ষ থেকে গলা টিপে হত্যার অভিযোগের  প্রসঙ্গে জানতে চাইলে পুলিশ সুপার মো. ইলিয়াছ শরীফ বিপিএম, পিপিএম (সেবা) বলেন, তারা লিখিত অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


Notice: Undefined index: email in /home/insaf24cp/public_html/wp-content/plugins/simple-social-share/simple-social-share.php on line 74