ইসলামবিদ্বেষী নয়, ইসলামপ্রেমী প্রজন্ম গড়ে তোলাই আমাদের লক্ষ্য: এরদোগান

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | মুসলিম বিশ্ব ডেস্ক


তুরস্কের সরকার এক নতুন নির্দেশনা জারি করেছে। এই নির্দেশনার আলোকে দেশের সব সরকারি ও বেসরকারি স্কুলে মসজিদ তৈরি করা হয়েছে। স্কুলে মসজিদের পাশাপাশি অজুর স্থান সহ ডাইনিং রুম, প্রশাসনিক কার্যালয়, ক্যান্টিন, রান্নাঘর, আর্কাইভ রুমেও যথেষ্ট পরিমাণ টয়লেট থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

তুরস্কের ধর্ম মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী ২০০৫ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত তুরস্ক সরকার দেশটিতে আট হাজার ৯৮৫টি মসজিদ নির্মাণ করেছে। ২০১৪ সালে তুরস্ক সরকার দেশটির সব বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি করে মসজিদ নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করে। এরই মধ্যে প্রায় সব মসজিদ নামাজের জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হয়েছে।

তুরস্কের সরকারি বিদ্যালয়গুলোতে ইসলামি শিক্ষা বাধ্যতামূলক। সেই সঙ্গে মহানবী হজরত মুহাম্মাদ  সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের জীবনী ও কোরআনে কারিমের নির্বাচিত কিছু অংশ মুখস্থ করতে হয় তাদের।

২০১৩ সালে এরদোগান সরকার হিজাবের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করে নেয়।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যিব এরদোগান দীর্ঘদিন ধরে দেশটির কথিত ধর্মনিরপেক্ষ অবস্থান পাল্টানোর কাজ করে যাচ্ছেন।

তার প্রচেষ্টায়  কামাল আতাতুর্ক কর্তৃক প্রবর্তিত অনেক নিয়ম-কানুনই আর বলবৎ নেই।

ইসলামি শিক্ষা প্রসঙ্গে প্রেসিডেন্ট এরদোগান বলেন, ‘আমরা ধর্মপরায়ণ এক যুব প্রজন্ম তৈরি করতে চাই। আপনারা কী মনে করেন যে একে পার্টি একটি ইসলামবিদ্বেষী প্রজন্ম তৈরি করবে? এটা কখনও আমাদের মিশন হতে পারে না। আমরা এমন এক প্রজন্ম তৈরি করতে চাই, যারা রক্ষণশীল গণতন্ত্রবাদী ও গণতান্ত্রিক। যারা নাস্তিক নয়; জাতির নীতি-নৈতিকতা ও মূলবোধকে যারা বুকে লালন করবে।’


Notice: Undefined index: email in /home/insaf24cp/public_html/wp-content/plugins/simple-social-share/simple-social-share.php on line 74