বেনামে ফেসবুক আইডি তৈরি করতে বলার কথা অস্বীকার করলেন এইচ টি ইমাম

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


ফাইল ছবি

অপপ্রচার রোধে ফেসবুকে ‘নামে-বেনামে অ্যাকাউন্ট খোলার’ পরামর্শ দেয়ার কথা অস্বীকার করেছেন প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম।

এবিষয়ে বিবিসিকে তিনি বলেছেন, “বেনামী ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলার কোন পরামর্শ দেয়নি। শুধু বলেছি তরুণ সমাজের হাতে একাধিক অ্যাকাউন্ট থাকলে তা ব্যবহার করে সোশাল মিডিয়ায় অপপ্রচারের জবাব দিতে এবং মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষে তৎপরতা বাড়াতে।”

প্রসঙ্গত, গত বুধবার ঢাকায় এক অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখার সময় এইচটি ইমাম ‘নামে-বেনামে’ ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলার পরামর্শ দেন। এই খবর জাতীয় দৈনিকেও প্রকাশ হয়।

প্রকশিত খবরে দেখা যায়, তিনি ঐ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ব্যক্তিবর্গকে লক্ষ্য করে বলেনছেন, “সোশ্যাল মিডিয়ায় মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তি বৃদ্ধিতে আপনাদের নাতি-নাতনিদের নামে-বেনামে একটার জায়গায় ১০টা কেন, প্রয়োজনে একশটা ফেসবুক আইডি খুলতে বলুন। নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সম্পৃক্ত করুন।”

এইচটি ইমাম বলেন, “আমি জেনে শুনে কোন বেআইনি কাজ করতে বলিনি। সামনে সোশাল মিডিয়া একটা বিশাল ভূমিকা রাখবে। আমি তরুণদের বলেছি, তোমরা এই হাতিয়ারটাকে ব্যবহার করো।”

“আমি নাতি-নাতনির কথাটা বলেছি এই কারণে যে আমার কাছে যারা নাতী-নাতনি তারা এখন সবাই ভোটার।” যোগ করেন তিনি।

এদিকে, ঐ অনুষ্ঠানে এইচ টি ইমাম জানিয়েছেন যে সোশ্যাল মিডিয়ার বড় অংশ এখন বিএনপি-জামায়াতের দখলে রয়েছে। এই তথ্য তিনি কোথা থেকে পেলেন? বিবিসির এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “দেশের বাইরে জামায়াত এবং তার ছাত্র সংগঠন শিবিরের তত্ত্বাবধানে বহু ফেসবুক অ্যাকাউন্ট রয়েছে যেখান থেকে দেশ, মুক্তিযুদ্ধ ইত্যাদি নানা বিষয়ে অপপ্রচার চালা্ছে বলে তারা অনুসন্ধান করে দেখতে পেয়েছেন।”

এছাড়া, সামাজিক মাধ্যমে প্রচারের লড়াইয়ে আওয়ামী কী হেরে যাচ্ছে কি না, বিবিসির এই প্রশ্নের জবাবে এইচটি ইমাম বলেন, “আমি বিষয়টাকে সেভাবে দেখতে চাই না। হেরে যাচ্ছি, আমি এটা বলছিনা। আমরা যাতে না হারি সে জন্য উদ্বুদ্ধ করার জন্যেই এসব কথা বলেছি।”