‘বিজেপি নেতা অমিত শাহ’র বাংলাদেশ বিরোধী বক্তব্য গণহত্যার পূর্বলক্ষণ’

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | আন্তর্জাতিক ডেস্ক


বাংলাদেশি অভিবাসীদের ‘উইপোকা’র সঙ্গে তুলনা করে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ’র করা মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছে যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন হিউম্যান রাইটস ওয়াচ।

এর ইউরোপীয় শাখার পরিচালক অন্ড্রু স্ট্রোহলেইন বলেছেন, ‘অমিত শাহ’র মন্তব্য গণহত্যার প্রস্তুতিকে স্মরণ করিয়ে দেয়।’

স্ট্রোহলেইন টুইটারে বলেন, ‘ভারতের ক্ষমতাসীন দলের সভাপতি আপত্তিকর এবং অতি পরিচিত একটি সীমা অতিক্রম করেছেন। সেটি হলো গণহত্যার প্রস্তুতির সীমা। যেকোন গণহত্যার ও জাতিগত বর্বরতার আগে ক্ষমতাবান রাজনৈতিক নেতারা মানুষকে ‘উইপোকা’ ‘তেলাপোকা’ ইত্যাদি প্রাণীর সঙ্গে তুলনা করেন।

সম্প্রতি রাজস্থানের এক সমাবেশে ভারতীয় জনতা দল-বিজেপির সভাপতি অমিত শাহ বলেন, ‘‘বাংলাদেশি অভিবাসীরা ‘উইপোকা’, শীঘ্রই ভোটার তালিকা থেকে এদের বাদ দেয়া হবে।’’

এ বিবৃতি অমিত শাহ’র মন্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়েছে ভারতের মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্ডিয়াও। সংগঠনটি টুইটে মন্তব্য করে, ‘এমনকি নাগরিকপঞ্জির ইস্যুটি বাদ দিলেও বাংলাদেশি অভিবাসীদের ‘উইপোকা’র সঙ্গে তুলনা করা আতঙ্কজনক।’ অমানবিক শব্দ ব্যবহার বন্ধ করতে অমিত শাহের প্রতি আহ্বান জানায় অ্যামন্যাস্টি ইন্ডিয়া।

চলতি বছরের ৩০ জুলাই আসামের রাজধানী গৌহাটি থেকে চূড়ান্ত খসড়া নাগরিক নিবন্ধন তালিকা বা নাগরিকপঞ্জি প্রকাশ করা হয়। এতে নিবন্ধনের জন্য আবেদন করা ৩ কোটি ২৯ লাখ মানুষের মধ্যে ২ কোটি ৮৯ লাখকে চূড়ান্ত তালিকায় স্থান দেয়া হয়। তালিকা থেকে বাদ পড়েন আসামের ৪০ লাখ ৭ হাজার ৭০৮ জন মানুষ। এদের বেশিরভাগই বাংলাভাষী মুসলমান বলে মনে করা হচ্ছে।


উৎস, আল-জাজিরা।