জানুয়ারি ১৯, ২০১৭

শত্রুরা চেয়েছিল তুরস্কের পতন কিন্তু তা হয়নি : এরদোগান

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

রজব তৈয়্যব এরদোগান

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান বলেছেন, ১৫ জুলাইয়ের ব্যর্থ অভ্যুত্থান ছিল দেশটির শত্রুদের জন্য একটি বড় আঘাত।

রোববার তিনি ইস্তাম্বুলের ইয়েনিক্যাপি এলাকায় সর্বদলীয় ‘ডেমোক্র্যাসি ও মারটার্স’ সমাবেশে এই কথা বলেন।

এরদোগান বলেন, জনগণের ঐক্য শত্রুদের হতাশ করেছে। শত্রুরা চেয়েছিল তুরস্কের পতন। কিন্তু তা হয়নি।
তিনি বলেন, তুরস্ক এখন ভবিষ্যতের সংহতির পথে রয়েছে।

 

সমাবেশে প্রায় ৫০ লাখ সমবেত হয়েছিল বলে ধারণা করা হচ্ছে। তুরস্কের ইতিহাসে এই প্রথম ক্ষমতাসীন জাস্টিজ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট (একে) পার্টি, বিরোধী রিপাবলিকান পিপলস পার্টি (সিএইচপি) এবং ন্যাশনালিস্ট মুভমেন্ট পার্টি (এমএইচপি) একই মঞ্চে উপস্থিত হলো।

636061797999692470-AFP-AFP-E14QZ
সেনাবাহিনীপ্রধান জেনারেল হুলুসি আকার এবং তুরস্কের ধর্মীয় বিভাগের প্রধান মেহমেত গোরমেজও এতে উপস্থিত ছিলেন।

তার বক্তব্য প্রচার করতে না দেয়ায় এরদোগান জার্মানির কড়া সমালোচনা করেন। সমাবেশে তিনি বলেন, জনগণ ও পার্লামেন্ট চাইলে তিনি তুরস্কে আবার মৃত্যুদণ্ড বহাল করবেন।

পিকেকের জঙ্গিদের ভিডিওর মাধ্যমে তাদের বক্তব্য প্রচার করতে দেয়ায় জার্মানির সমালোচনা করে বলেন, ‘গণতন্ত্র কোথায়?’ তারা তো সন্ত্রাসীদের লালন করছে। এই সন্ত্রাসীরাই তাদের প্রত্যাঘাত করবে।