মার্চ ২৬, ২০১৭

পৃথিবীর সবচেয়ে মানবিক ও উদার, শান্তির ধর্ম ইসলাম: শেখ হাসিনা

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

0811142348প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, জঙ্গিরা কুরআনের বাণীকে অস্বীকার করছে। তিনি কুরআনোর বিভিন্ন আয়াত ও হাদীস উল্লেখ করে বলেন সন্ত্রাস ও দুর্যোগ সৃষ্টিকারীদেরকে আল্লাহ পছন্দ করেন না। অথচ জঙ্গিরা সন্ত্রাস ও দুযোগ সৃষ্টি করে, মানুষ হত্যা করে জান্নাতে যেতে চায়।

রাজধানীর খামারবাড়িতে কৃষিবিদ ইনিস্টিটিউটে অনুষ্ঠিত সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় করণীয় বিষয়ে ওলামা-মাশায়েখদের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

লক্ষাধিক আলেমের ঐক্যবদ্ধভাবে দেয়া ফতোয়াকে সময়োপযোগী ও মহৎ কাজ উল্লেখ করে তিনি আলেমদেরকে কৃতজ্ঞতা ও ধন্যবাদ জানান। তিনি দেশের মানুষকে জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সচেতন করতে আলেমদের সক্রিয় ভূমিকা অব্যহত রাখার আহ্বান জানান।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, পৃথিবীর সবচেয়ে মানবিক ও উদার, শান্তি-সৌহার্দ্য ও সহনশীলতার ধর্ম ইসলাম। সবচেয়ে দুঃখ লাগে যখন সামান্য কিছু লোক ধর্মের নাম ব্যবহার করে সন্ত্রাস চালাচ্ছে, মানুষ হত্যা করছে। আমাদের পবিত্র ধর্মকে হেয় করছে।

শেখ হাসিনা বলেন, যখন কোনো আন্তর্জাতিক সম্মেলনে যাই, কেউ ইসলামিস্ট টেরোরিস্ট বললে আমি সঙ্গে সঙ্গে তার প্রতিবাদ করি। সন্ত্রাসী কোনো ধর্মের হতে পারে না। কিন্তু ভাবতে আমার নিজেরও কষ্ট লাগে। সামান্য কয়েকটা লোক কোথায় নিয়ে গেল আমাদের শান্তির ধর্মকে।

‘যারা সন্ত্রাস করে, মানুষ হত্যা করে তারা আদৌ কোনো ধর্মে বিশ্বাস করে কিনা সেটা দেখা দরকার।’

পবিত্র কোরানের একটি আয়াতের উদ্ধৃতি দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, কেউ কোনো ব্যক্তিকে হত্যা করলে সে যেন গোটা মানবজাতিকে হত্যা করলো। আর কেউ যদি কোনো ব্যক্তিকে রক্ষা, করে সে যেন গোটা মানবজাতিকে রক্ষা করলো।

আরেকটি আয়াতের উদ্ধৃতি দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, নিশ্চয়ই আল্লাহ মানুষ হত্যাকারী ও দুর্যোগ সৃষ্টিকারীদের পছন্দ করেন না।

সন্ত্রাসী ও জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ডে জড়িতদের নিন্দা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তারা কোরআন, হাদিস, ইসলামের পবিত্র বাণী মানবে না, নামাজ না পড়ে মানুষ খুন করতে যায়, তারা কী করে বেহেশতে যাবে। তারা কী করে ভাবে, তারা মানুষ খুন করে বেহেশতে যাবে।

ইসলামের মহান বাণী মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে আলেম সমাজের প্রতি আহ্বান জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, সারাদেশের মানুষের মধ্যে সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে একটা চেতনা সৃষ্টি হয়েছে। এ চেতনাকে আরও শাণিত করতে হবে।

তিনি বলেন, মানুষকে আরও ভালোভাবে বোঝাতে হবে জঙ্গিবাদের পথ ইসলামের পথ নয়। কেউ যেন সন্ত্রাসের পথে না যায়। সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে জনমত সৃষ্টি করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে প্রায় ৯০ ভাগ মানুষ ইসলাম ধর্মে বিশ্বাস করে। কিন্তু এখানে সুন্দর বিষয় হলো এক ধর্মের মানুষ আরেক ধর্মের মানুষকে শ্রদ্ধা করেন, সম্মান করেন, সহযোগিতা করেন। এটা এদেশের মানুষের সবচেয়ে বড় অর্জন। এবারও ঈদের জামাতে হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ পাহারা দিয়েছে যেন নির্বিঘ্নে নামাজ আদায় করতে পারে। আবার মুসলমান ভাইয়েরা এভাবে হিন্দুরা যেন পূজা-অর্চনা করতে পারে নির্বিঘ্নে সে ব্যবস্থা করে। এভাবে সবাই সবাইকে সহযোগিতা করেন। এটা আমাদের ইসলাম ধর্মই শিক্ষা দিয়েছে। অপরকে সহযোগিতা করা, অপরের প্রতি সহনশীল হওয়া।