ইসলাম বিরোধী মন্তব্য করায় ভারতে পুলিশ কর্মকর্তা বহিষ্কার

2016-02-14_190758সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ইসলাম বিরোধী মন্তব্য করায় ভারতের আসাম প্রদেশের এক জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। অঞ্জন বোরা নামের ওই পুলিশ কর্মকর্তা ফেসবুকে তার ব্যক্তিগত অ্যাকাউন্ট থেকে আজান নিষিদ্ধ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছিলেন।

ভারতীয় গণমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস জানায়, ফেসবুকে অঞ্জন মুসলিমদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে আজান নিষিদ্ধের প্রত্যয় ব্যক্ত করার পাশাপাশি অনেক মুসলিম সংখ্যালঘুকে হত্যা করেছেন বলেও জানান। উদাহরণ হিসেবে রফিকুল ইসলাম নামে আসামের এক কংগ্রেস কর্মীর কথা উল্লেখ করেন তিনি। অঞ্জন বোরা আসামের কারবি আংলং জেলার উপ-পুলিশ সুপার (ডিএসপি)। ফেসবুকে তার অনেক বন্ধু এবং অনুসারী আছে।

ডিএসপি অঞ্জন তার ফেসবুকে পোস্টে আরো লিখেন, ‘জয় শ্রী রাম, জয় হিন্দুস্তান, জয় জয় শ্রী রাম, জয় হিন্দুভূমি। আমাদের একটি মুসলিম-মুক্ত হিন্দুস্তানে বাস করা উচিত।’

ফেসবুকে তার এ পোস্টের পরপরই সারা আসাম জুড়ে বিক্ষোভের সৃষ্টি হয়। অনেকে তাকে গ্রেপ্তার এবং চাকরি থেকে বরখাস্তের দাবি করেন। আসামে সংখ্যালঘু ছাত্রদের সংগঠন বোরোল্যান্ড মাইনরিটি স্টুডেন্টস ইউনিয়নের প্রচার সম্পাদক কে আলি অঞ্জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন। এছাড়া ওই ডিএসপির বিরুদ্ধে আরো কয়েকটি মামলা করার সিদ্ধান্ত নেয় সংগঠনটি।

অঞ্জনের বরখাস্তে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে গোহাটি হাইকোর্টের আইনজীবী বোরহানুর রহমান বলেন, ‘অঞ্জন বোরাকে বরখাস্ত করায় আমরা সরকারকে ধন্যবাদ জানাই। আমি আশা করি, যথার্থ প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে তাকে চাকরি অব্যহতি দেয়া হবে। তার মতো লোকেরা ভয়ানক সন্ত্রাসীদের চেয়েও বিপজ্জনক।’

তবে ফেসবুকের অনেক হিন্দু বন্ধুই আবার অঞ্জনকে সমর্থন দিয়েছেন। নিরুপম সোনোয়াল নামের একজন তার ফেসবুক পোস্টের মন্তব্যে লিখেছেন, ‘আপনিই সত্যিকারের পুলিশ কর্মকর্তা। ভালো থাকবেন।’ দিব্যজ্যোতি নামের অপর একজন লিখেছেন, ‘আমরা আপনার সাথে আছি স্যার।’