পৃথিবীর সবচেয়ে ক্ষুদ্রতম কুরআনের সংস্করণ এখন তুরস্কে

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | আরিফ মুসতাহসান



তুরস্কের একটি জাদুঘরে রয়েছে পৃথিবীর সবচেয়ে ক্ষুদ্রতম কুরআনের সংস্করণ। বিসমিল্লাহ’র শব্দগুলো লেখা রয়েছে ছোট ছোট চুলের মধ্যে। সাথে সাথে তীন ফলের গোলাপি রঙের বিচি যাতে আসমাউল হুসনা অর্থাৎ ৯৯ নাম লেখা রয়েছে। এছাড়াও সেখানে আরো ৪০টি এমন শিল্পকর্ম রয়েছে।

জাদুঘরটি পশ্চিম তুরস্কের আয়ডিন রাজ্যের কোশ আদাসী এলাকায় অবস্থিত। যেখানে রয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষুদ্রতম শিল্পকর্ম ও ঐতিহাসিক নিদর্শন। এ শিল্পকর্মগুলো দেখতে হলে মাইক্রোস্কোপ ও অপটিক্যাল এম্প্লিফায়ার প্রয়োজন হয়।

প্রায় ৩০বছর ধরে ‘নাজাতি কর্কমাজ’ নামের একলোক এই জাদুঘরে ঐতিহাসিক শিল্পকর্মগুলো তৈরি করেছেন। আয়ডিনে ক্ষুদ্রতম শিল্পকর্ম প্রদর্শনীর সময় কর্কমাজ বলেন, এই প্রদর্শনীটি শহরের সাংস্কৃতিক ও পর্যটন খাতের উন্নয়নে অনেক অবদান রাখবে।

কর্কমাজ আরো বলেন, উক্ত স্থাপনাটি নগরীর প্রত্নতাত্ত্বিক ভবনে স্থানান্তরিত করা হবে। যার ফলে প্রদর্শনীটি পর্যটক ও দর্শকদের আরো আকর্ষিত করতে সক্ষম হবে।

তিনি আরো বলেন, আমি ৩০ বছর যাবত এটি নিয়ে কাজ করেছি, মানুষ যাতে ছোট এই জাদুঘরে খুব সহজেই প্রদর্শন করতে পারে তার চেষ্টা করেছি।

প্রদর্শনীগুলো ৩টি রুমে ধারণ করা হয়েছে। পাশাপাশি সুড়ঙ্গপথ রয়েছে যার ভিতরে হস্তনির্মিত কিছু কারুকার্য রয়েছে।

কোশ আদাসী রাজ্যের মেয়র ওজার কায়লী বলেন, কার্কমাজ ৩০ বছর যাবত এগুলা নিয়ে কাজ করেছেন। নিশ্চয়ই এগুলা রাজ্য ও দেশের সৌন্দর্য্য বৃদ্ধি করে। বিশ্বের মধ্যে এটি বিরল এক কাজ।


নাজাতি কর্কমাজ

-তুর্কি পোস্ট অবলম্বনে


Notice: Undefined index: email in /home/insaf24cp/public_html/wp-content/plugins/simple-social-share/simple-social-share.php on line 74