বাসচাপায় মাদরাসা শিক্ষার্থী নিহত; বিচারের দাবিতে ছাত্র জমিয়তের মানববন্ধন

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি



বাসচাপায় মাদরাসা শিক্ষার্থী আতিকুল ইসলাম (১১ নিহতের ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবিতে মানববন্ধন করেছে ছাত্র জমিয়ত বাংলাদেশ ঢাকা মহানগরী।

আজ বিকাল ৫টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকা মহানগর ছাত্র জমিয়তের সভাপতি হাফেজ বুরহানুদ্দীনের সভাপতিত্বে ও প্রচার প্রকাশনা সম্পাদক নূর হোসাইন সবুজের পরিচালনায় এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ও ঢাকা মহানগর সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মতিউর রহমান গাজীপুরী, নগর সেক্রেটারি আব্দুর রহমান নাদিম।

বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ শরিয়াহ আন্দোলনের কেন্দ্রীয় মহাসচিব মাওলানা মাসউদুর রহমান, ঢাকা মহানগর ছাত্র জমিয়তের সহ সভাপতি আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ আল হাবীব, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক ইয়াকুব কামাল, কলেজ সম্পাদক মুস্তফা আল হাসান, সহ অর্থ সম্পাদক মাহদী হাসান, কার্যনির্বাহী সদস্য উবায়দুল্লাহ ও আব্দুল মাজেদ প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, অতিতের দুর্ঘটনাগুলোর সঠিক তদন্ত করে দায়ীদের বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা না নেয়ায় পরিবহন চালকদের বেপরোয়া ভাব দিন দিন যেন বেড়েই চলেছে ৷ অবিলম্বে শিক্ষার্থী আতিকুল ইসলামের ঘাতক বাসচালককে গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত শাস্তি ও নিহতের পরিবারকে যথাযথ ক্ষতিপূরণ নিশ্চিত করতে হবে ৷ পাশাপাশি অব্যাহত সড়ক দুর্ঘটনা বন্ধে শিক্ষার্থীদের ‘নিরাপদ সড়ক চাই’ আন্দোলনের ৬ দফা অবিলম্বে কার্যকর করতে হবে ৷

উল্লেখ্য, আজ ১৮ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সকাল ৬টার দিকে রাজধানী গুলশানের নর্দায় বেপরোয়া বাসচাপায় আতিকুল ইসলাম (১১) নামে এক মাদরাসা ছাত্র নিহত হয়।

নিহত আতিকুল ইসলাম ময়মনসিংহ তারাকান্দা উপজেলার পাগলী গ্রামের মো. শহিদুল্লার ছেলে। নিহত আতিকুল তার বড়ভাই আমানউল্লাহর সঙ্গে ভাটারা পূর্ব নয়ানগর হাজী আব্দুর সাত্তার মাদরাসায় নুরানী বিভাগে পড়তেন। আমানউল্লাহ হেফজ বিভাগে পড়ে।

বড়ভাই আমানউল্লাহ জানান, তারা মাদরাসা থেকে ১০ থেকে ১২ জন ছাত্র ছুটিতে একঙ্গে বাড়ি যাচ্ছিলেন। মাদরাসা থেকে পায়ে হেঁটে নর্দায় যায়। সেখান থেকে বাসে করে কুড়িল বিশ্বরোড়ে যাবে। নর্দা ফুটওভার ব্রিজের নিচে রাস্তার পার হওয়ার সময় নতুনবাজারগামী একটি বাস আতিকুলকে চাপা দেয়। এতে সে গুরুতর আহত হয়। সাথে সাথে তাকে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে নেয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক সকাল ১০টায় তাকে মৃত ঘোষণা করেন।


Notice: Undefined index: email in /home/insaf24cp/public_html/wp-content/plugins/simple-social-share/simple-social-share.php on line 74