অজানা রোগের ভয়ংকর হানায় বিপর্যস্ত ভারত, আক্রান্ত ৬০০

সপ্তাহখানেক আগে ভারতের যে এলাকায় অজানা রোগে আক্রান্ত প্রায় ছয়শ’ মানুষকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল, সেই এলাকা থেকে সংগ্রহ করা দুধের নমুনায় নিকেল-এর খোঁজ পেয়েছে বিজ্ঞানীরা। অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সাইন্সের (এআইআইএমএস) বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, দুধের নমুনায় নিকেল পাওয়া আশঙ্কাজনক বিষয়। এটি সতর্কবার্তা বলেও উল্লেখ করেন তারা। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

গত সপ্তাহে অন্ধ্র প্রদেশের ইলুরু শহরে একটি রহস্যময় রোগ হানা দেয়। প্রায় কাছাকাছি ধরনের উপসর্গ নিয়ে শহরের প্রায় ছয়শ’ বাসিন্দা হাসপাতালে ভর্তি হয়। তাদের মধ্যে খিঁচুনি, কাঁপুনি, মাথা ঘুরে পড়ে যাওয়ার মতো উপসর্গ দেখা দেয়। এদের মধ্যে অন্তত তিন জনের মৃত্যু হয়। বিষয়টি নিয়ে দুশ্চিন্তায় পড়েন রাজ্যের স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা।

অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব মেডিক্যাল সাইন্সের পরীক্ষায় ওই এলাকার দুধের নমুনায় নিকেলের উপস্থিতি পাওয়া যাওয়ার পর ইলুরু জেলা হাসপাতালের মেডিক্যাল সুপারিন্টেডেন্ট আভর মোহন বলেন, এটা ভয়াবহ। তবে কিভাবে নিকেল এর মতো ধাতু দুধে পৌঁছালো সে সম্পর্কে বিজ্ঞানীরা এখনও নিশ্চিত হতে পারেনি বলে জানান তিনি। কিন্তু সম্ভাবনা আছে কোনও কীটনাশকের মারফত হয়তো পৌঁছে থাকতে পারে। আভর মোহন বলেন, ঘাস বা অন্য কোনও কিছু হয়তো হবে যেটি গবাদি পশু খেয়েছে সেখান থেকেই নিকেল দুধে পৌঁছে থাকতে পারে।

গত সপ্তাহে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা জানান অজানা রোগে আক্রান্ত রোগীদের রক্তে অতিরিক্ত পরিমাণ সিসা ও নিকেল পাওয়া গেছে। কর্তৃপক্ষ এগুলোর উৎস সন্ধানের চেষ্টা করছে বলে সেসময় জানানো হয়।