হিন্দু, বৌদ্ধ, শিখ, জৈন, খ্রিস্টানদের নাগরিকত্ব দেয়া হবে, মুসলমানদের নয় : অমিত শাহ

অক্টোবর ১০, ২০১৯

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | আন্তর্জাতিক ডেস্ক


পশ্চিমবঙ্গের হিন্দুদের এনআরসি নিয়ে বিন্দুমাত্র শঙ্কিত হওয়ার কোনও কারণ নেই। শুধু হিন্দুই নয়, বৌদ্ধ, জৈন, খ্রিস্টান শরণার্থীদেরও এনআরসি-র মাধ্যমে ভারত ছাড়া হওয়ার কোনও সম্ভাবনাই নেই। তবে অবৈধ অনুপ্রবেশকারী মুসলমানদের তাড়ানো হবে। আর পশ্চিমবঙ্গে অবশ্যই এনআরসি হবে। এর আগে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস করিয়ে নেবে মোদী সরকার।

রাজ্যজোড়া এনআরসি ভীতির আবহে মঙ্গলবার কলকাতার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে এ কথা স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিলেন বিজেপি সর্বভারতীয় সভাপতি তথা কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। খবর ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের।

পাশাপাশি এনআরসি ইস্যুতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মিথ্যাচার করছেন বলেও অভিযোগ করেছেন শাহ।

তিনি বলেন, দেশ থেকে একজন শরণার্থীও বাদ যাবেন না, দেশে একজনও অনুপ্রবেশকারী থাকবে না। বাংলায় একজনও হিন্দু, বৌদ্ধ, শিখ, জৈন, খ্রিস্টান শরণার্থীদের এনআরসি করে বিতাড়িত করা হবে না। দেশে আগে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল আনা হবেই। অতীতে এই বিলের বিরোধিতা করে আটকে দিয়েছিল তৃণমূল। কিন্তু আজকের রাজনৈতিক বাস্তবতায় তৃণমূল চাইলেও এই বিল আটকাতে পারবে না। আমরা এই বিল পাস করাবই। এই বিল পাস করিয়েই শরণার্থীদের নাগরিকত্ব দেবে মোদী সরকার।

অমিত শাহ আরও বলেন, এনআরসি নিয়ে বাংলায় মানুষকে ভুল বোঝানো হচ্ছে। বিজেপি কর্মীদের বলছি, আপনারা বাড়ি বাড়ি গিয়ে বোঝান মানুষকে। এনআরসি নিয়ে মমতাদি মিথ্যাচার করছেন। উনি বলেছেন, লাখো লাখো হিন্দু শরণার্থীকে তাড়ানো হবে। আমি বলছি, কোনও হিন্দু শরণার্থীকে ভারত ছাড়া করা হবে না। অনুপ্রবেশ নিয়ে সংসদে সরব হয়েছিলেন মমতাই। যদি ভুলে যান, তাহলে পুরনো ফুটেজ দেখুন। অনুপ্রবেশকারীরা তৃণমূলের ভোটব্যাঙ্ক।