আগস্ট পর্যন্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার নির্দেশ দিল কুয়েত সরকার

মহামারী করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে কুয়েত সরকার তাদের দেশের জনগণ ও অভিবাসীদের ঘরে থাকতে নির্দেশ দিয়েছে।

একইসঙ্গে কোনো ব্যক্তি এ নির্দেশ লঙ্ঘন করলে তাকে ৫ হাজার দিনার জরিমানা সেই সঙ্গে ৩ মাসের জন্য প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়ার বিধান রেখেছে দেশটির সরকার।

স্কুল, মাদ্রাসা চলতি মাস পুরো বন্ধ রাখার কথা বলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দেশটির তথ্য মন্ত্রণালয় এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে সময় বাড়িয়ে স্কুল মাদ্রাসা আগামী আগস্টের ৩ তারিখ পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে।

নির্দেশ অমান্য করলে ৫ হাজার দিনার জরিমানা ও ৩ মাসের জন্য প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হবে। আর যদি কেউ করোনাভাইরাস রোগে আক্রান্ত হয়ে ইচ্ছাকৃতভাবে লুকিয়ে থাকবে। লোক সমাগমে ঘুরে বেড়াবে তাকে ৫ বছরের কারাদন্ড এবং ১০ হাজার থেকে ৫০ হাজার দিনার জরিমানা করা হবে।

এছাড়াও পূর্বের নির্দেশনা মোতাবেক কুয়েতের ধর্মমন্ত্রণালয় আওকাফ জুমার নামাজের পরিবর্তে ৪ রাকাত জোহরের নামাজ বাসায় আদায় করতে বলা হয়েছে।

পরিস্থিতি মোকাবেলায় দেশটিতে দুই সপ্তাহ সাধারণ ছুটি চলছে। এসময়ে সবধরণের অনুষ্ঠান, সভাসেমিনার যে সকল স্থানে লোকসমাগম বেশি হয় সে সব স্থানসহ সব ধরনের ফ্লাইট, গণপরিবহন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ব্যাংক, মসজিদ, বিনোদন কেন্দ্রগুলো সাময়িকভাবে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে।

বন্ধের আওতায় থাকবে না কার্গো বিমান, কো-অপারেটিভ সোসাইটি, ফার্মেসি, পেট্রল পাম্প ও এটিএম বুথ। এছাড়াও খাবার হোটেলগুলো হোম সার্ভিস ও পার্সেল বিক্রি করতে পারবে তবে ভেতরে বসে খেতে পারবে না। জরুরী যে সকল দোকানপাট খোলা রয়েছে সে সকল দোকানে একসঙ্গে ৫ জনের বেশি ক্রেতা প্রবেশ করতে পারবে না। প্রয়োজন ছাড়া বাহিরে বের না হতে এবং অধিক লোক এক সঙ্গে ঘুরাঘুরি করতে নিষেধ করা হয়েছে।