আন্দোলনের কর্মসূচি ঠিক করতে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সঙ্গে বৈঠক চায় ঐক্যফ্রন্ট

ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২০ । নিজস্ব প্রতিনিধি

আন্দোলনের কর্মসূচির ধরন নিয়ে জোটের মধ্যকার চলমান সমস্যা সমাধানে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যদের সঙ্গে বৈঠক করতে চায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট।

জোটের নেতারা বলছেন, গত ১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত ঢাকা দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনের আগে ঐক্যফ্রন্টের ৪টি পথসভা করার কথা ছিল। কিন্তু বিএনপির কারণে সেগুলো করা হয়নি। এভাবে কর্মসূচি ঘোষণা করে তা পালন করতে না পারলে ফ্রন্টের প্রতি মানুষের আস্থা নষ্ট হয়ে যাবে। ফলে আগামীদিনের কর্মসূচি, কর্মসূচির ধরন ও কিভাবে তা পালন করতে হবে এসব বিষয়ে সমাধানের জন্য বিএনপির স্থায়ী কমিটির সঙ্গে ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটি বৈঠক করতে চায়।

জানাগেছে, ৪ ফেব্রুয়ারি (মঙ্গলবার) অনুষ্ঠিত ফ্রন্টের বৈঠকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আব্দুল মঈন খানকে বৈঠক করার প্রস্তাব দেন ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম উদ্যোক্তা ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ঐক্যফ্রন্টের স্টিয়ারিং কমিটির এক নেতা বলেন, বৈঠকের এক পর্যায়ে জেএসডির নেতা শহীদুল্লাহ কাউসার বলেন, আন্দোলনের যাওয়ার শর্তে আমরা বিএনপিকে সিটি নির্বাচনে সমর্থন দিয়েছি। তাহলে এখনও আমাদের সবাইকে রাস্তায় নামা উচিত।

তখন বিএনপির নেতা মঈন খান বলেন, আমাদের স্থায়ী কমিটির বৈঠকে কেউ হরতাল দিতে রাজি ছিল না। তখন আমি জোটের সমর্থনের কথাটি উপস্থাপন করি। এরপরই নির্বাচনের পরের দিন হরতাল দেওয়ার জন্য স্থায়ী কমিটি রাজি হয়েছে।

পরে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, তাহলে আমরা বিএনপির স্থায়ী কমিটির সঙ্গে বৈঠক করি। আমাদের মধ্যে যেসব সমস্যা আছে সেইগুলো নিয়ে কথা বলে সমাধান করি।

জবাবে মঈন খান বলেন, স্থায়ী কমিটির নেতাদের সঙ্গে কথা বলে ফ্রন্টের সঙ্গে বৈঠক করার বিষয়ে রাজি করাতে হবে আগে।

এছাড়া বৈঠকে উপস্থিত দুই নেতা জানান, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের পরিধি বাড়ানোর বিষয়েও আলোচনা হয়েছে। জোটে ইসলামী দলগুলোকে অন্তর্ভুক্ত করারও প্রস্তাব দেন জাফরুল্লাহ। এই বিষয়ে বিএনপির মধ্যেও আলোচনা চলছে বলেও জানিয়েছে তাদের প্রতিনিধি।

এদিকে আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার দুই বছরের কারাবাসের প্রতিবাদে ঘোষিত প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন শেষে হাইকোর্টে পর্যন্ত পদযাত্রা করার বিষয়েও আলোচনা হয়েছে। তবে এ নিয়ে কোনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি।