আমরা মহান আল্লাহর রহমতে এই মহাদুর্যোগ মোকাবেলা করতে সক্ষম হব : ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, জাতীয় ও বৈশ্বিক মহাদুর্যোগ মোকাবেলায় যেকোনো উদ্যোগে যোগ দিতে আমরা প্রস্তুত আছি। এই দুর্যোগ পরিস্থিতিতে দম্ভ, অহংকার ও রাজনৈতিক প্রতিহিংসা পরিহার করে ঐক্যমত প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে অবশ্যই সরকারকেই। কারণ পুরো দায়িত্বটা সরকারের। দুর্ভাগ্যজনকভাবে তারা এটা অবহেলা করছেন। আমি জানি না তারা এটাকে নেগলেট করেছেন কী কারণে। আমরা বিশ্বাস করি জাতীয় ঐক্যমতের ভিত্তিতে সমন্বিত পরিকল্পনা করে বাস্তবায়নের মাধ্যমে আমরা মহান আল্লাহর রহমতে এই মহাদুর্যোগ মোকাবেলা করতে সক্ষম হব।

সোমবার বাম গণতান্ত্রিক জোটের উদ্যোগে ‘সর্বদলীয় পরামর্শক সভায়’ স্কাইপের মাধ্যমে যোগ দিয়ে তিনি একথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, দলীয়করণের ঊর্ধ্বে উঠতে না পারলে করোনাভাইরাস মোকাবেলা কোনোভাবে সম্ভব না। ভয়াবহ দিন আসছে সামনের দিনগুলোতে। আপনারা সবাই একমত হবেন সবাইকে নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে দেশপ্রেমকে সামনে রেখে, সততাকে সামনে রেখে যদি হ্যান্ডেল করা না যায় তাহলে আরও বড় বিপর্যয়ের মুখে পড়ব, অনেকে দুর্ভিক্ষের আশঙ্কাও করছেন।

তিনি বলেন, আমরা করোনাভাইরাস সংক্রমণের ব্যাপারে অত্যন্ত সজাগ থেকে সচেতনভাবে কাজ করছি, ভেতরের সমস্যাগুলো তুলে ধরেছি। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে সরকার সেগুলোকে কখনোই গুরুত্ব দেয়নি। যে ত্রাণ দেওয়া হচ্ছে-তা একেবারেই অপ্রতুল। জেনেছি যে, ৪০ হাজার লোকের মধ্যে মাত্র ৩শ লোককে দেওয়া হয়েছে ত্রাণ, সেখানেও দলীয়করণ করা হয়েছে।

করোনাভাইরাস সংক্রমণ মোকাবেলায় স্বল্প, মধ্য ও দীর্ঘ মেয়াদী দলীয় পরিকল্পনার পাশাপাশি ৮৭ হাজার কোটি টাকার প্রণোদনা প্রদানের প্রস্তাবনাসমূহ তুলে ধরেন বিএনপি মহাসচিব।

সভার সূচনা বক্তব্যে বাম গণতান্ত্রিক জোটের সমন্বয়ক বজলুর রশীদ ফিরোজ করোনাভাইরাস সংক্রমণকে জাতীয় দুর্যোগ ঘোষণা করে তা মোকাবেলায় সমন্বিত জাতীয় উদ্যোগ গ্রহণের কথা বলেন।