লাই মাসের গোড়ার দিকে উত্তর কোরিয়া নিজের প্রথম আইসিবিএমের পরীক্ষা চালায়

উত্তর কোরিয়া নিজের সর্বসাম্প্রতিক আইসিবিএম পরীক্ষায় উচ্ছাস প্রকাশ করে বলেছে, এর মাধ্যমে দেশটির ওপর হামলা চালানোর হুমকি থেকে আমেরিকা সরে আসবে।

উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, শুক্রবার রাতের ওই পরীক্ষার মাধ্যমে আমেরিকাকে একথা স্মরণ করিয়ে দেয়া হয়েছে যে, পিয়ংইয়ংয়ের ওপর হামলা চালানোর যে ‘বোকামিপূর্ণ স্বপ্ন’ ওয়াশিংটন দেখত তা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ট ট্রাম্পের অব্যাহত হুমকির কারণে এ পরীক্ষা চালাতে বাধ্য হয়েছে উত্তর কোরিয়া। এ ধরনের হুমকির কারণেই দেশটি নিজের সমরাস্ত্র কর্মসূচি শক্তিশালী করেছে বলেও বিবৃতিতে জানানো হয়।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গত শুক্রবার উত্তর কোরিয়াকে সতর্ক করে দিয়ে বক্তব্য রাখেন। সেইসঙ্গে তিনি চীনকে উদ্দেশ করে বলেন, উত্তর কোরিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করার যে প্রতিশ্রুতি বেইজিং দিয়েছিল তা দেশটি বাস্তবায়ন করছে না।

ট্রাম্পের ওই হুমকির কয়েক ঘণ্টা পর উত্তর কোরিয়া ১০,০০০ কিলোমিটারের বেশি পাল্লার একটি আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্রের সফল পরীক্ষা চালিয়ে জানায়, গোটা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এখন পিয়ংইয়ংয়ের ক্ষেপণাস্ত্র হামলার আওতায় চলে এসেছে।

উত্তর কোরিয়া দৃশ্যত এ পরীক্ষার মাধ্যমে মার্কিন কংগ্রেসে পাস হওয়া পিয়ংইয়ং বিরোধী নিষেধাজ্ঞারও জবাব দিয়েছে।

উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে আরো বলা হয়েছে, দেশটির ওপর চাপ প্রয়োগের নীতি থেকে ওয়াশিংটনকে সরে যেতে হবে। এ ছাড়া, বিবৃতিতে পিয়ংইয়ংয়ের বিরুদ্ধে অর্থহীন বক্তব্য দেয়া থেকে মার্কিন কর্মকর্তাদের বিরত থাকারও আহ্বান জানানো হয়।

পার্সটুডে