আমেরিকার পারমানবিক যুদ্ধজাহাজের নাবিক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা গেছে

মহামারী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আমেরিকার পারমানবিক যুদ্ধজাহাজ ইউএসএস থিওডোর রুজভেল্টে কর্মরত এক নাবিকের মৃত্যু হয়েছে।

আমেরিকার নৌবাহিনীর এক বিবৃতিতে এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে জাহাজটির প্রথম কোনও নাবিকের মৃত্যুর কথা নিশ্চিত করা হয়েছে।

সোমবার (১৩ এপ্রিল) তার মৃত্যু হয়। গুয়াম দ্বীপে আইসোলেশনে থাকা ওই নাবিক ৯ এপ্রিল থেকে অচেতন ছিল।

এখন পর্যন্ত জাহাজটির পাঁচশোরও বেশি নাবিক এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।

রুজভেল্ট বর্তমানে পশ্চিম প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপ গুয়াম উপকূলে নোঙর করে আছে। নাবিকেরা দ্বীপের অভ্যন্তরে আইসোলেশনে রয়েছে।

দেশটির নৌবাহিনী জানিয়েছে, জাহাজটির প্রায় ৯২ শতাংশ কর্মীর করোনাভাইরাস পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ৫৮৫ জনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে আর তিন হাজার ৭২৪ জনের ধরা পড়েনি। সরিয়ে নেওয়া হয়েছে জাহাজটির প্রায় চার হাজার নাবিককে।

গত ৩০ মার্চ থিওডোর রুজভেল্টের ক্যাপ্টেন ব্রেট ক্রোজিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের চিঠি দিয়ে জাহাজে সংক্রমণ ঠেকানোর আহ্বান জানান।

ওই চিঠিতে তিনি বলেন, জাহাজে ভাইরাসটির বিস্তার দ্রুত হচ্ছে আর আবদ্ধ কোয়ার্টারগুলোতে আক্রান্তদের রাখা অসম্ভব হয়ে উঠছে।

ওই চিঠিটি সংবাদমাধ্যমে ফাঁস করে দেওয়ার অভিযোগে তাকে বরখাস্ত করা হয়।

এনিয়ে তীব্র সমালোচনার মুখে পদত্যাগে বাধ্য হন মার্কিন নেভি সেক্রেটারি থমাস মুডলি।