ইনসাফকে শুধু শুভেচ্ছা নয়; এগিয়ে আসতে হবে সর্বাত্মক সহযোগিতা নিয়ে

আব্দুল্লাহ মাসউদ খান | সাবেক সভাপতি : বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসমাজ


আলহামদু লিল্লাহ। বাংলাদেশের ইসলামী ঘরানার প্রথম ও সবচেয়ে পাঠকপ্রিয় অনলাইন পত্রিকা, আমার প্রিয় ইনসাফ অর্ধযুগ পূর্ণ করে সপ্তম বর্ষে পদার্পণ করেছে। এই শুভক্ষণে ইনসাফ পরিবারকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই।

পাশাপাশি সকলের জ্ঞাতার্থে আমার আবেদন থাকবে, হলুদ সাংবাদিকতা, পদলেহী লেজুড়বৃত্তিক মিডিয়ার যখন সীমাহীন উৎপাত আস্ফালনে দেশ-জাতি আজ বিপন্ন।

সেই কঠিন ক্রান্তিলগ্নে যে বিশাল সাহসিকতার সাথে একঝাঁক তরুণ নিবেদিতপ্রাণ মিডিয়ায় অসম যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছে, এবং শতবাধাঁ-বিপত্তি ও প্রতিকূলতাকে মোকাবিলা করে নিরবচ্ছিন্ন ভাবে কাজ করে চলছে, তার বিনিময়ে আমাদের শুধু সাধুবাদ আর শুভেচ্ছা জানালেই দায়িত্ব শেষ হবে না।

বরং এই জনপ্রিয়, কল্যাণমুখী জনস্বার্থ কেন্দ্রীক প্রতিষ্ঠানটি যেন স্বরূপে টিকে থাকতে পারে এবং উত্তরোত্তর অগ্রগতি সাধন করে কোটি কোটি মানুষের আস্থা ও ভালোবাসা নিয়ে বাতিল অপশক্তির বিরুদ্ধে নিরলসভাবে কাজ করতে পারে, সে বিষয়ে আমাদের সর্বাত্মক সহযোগিতায় এগিয়ে আসতে হবে।

এই বিষয়ে আমাদের কারো দ্বীমত নেই যে, ইসলামপন্থীগণ মিডিয়া যুদ্ধে মারাত্মক অধঃপতিত। শুধুমাত্র মিডিয়ায় দুর্বল অবস্থানের কারণে আমরা আজ সীমাহীন পর্যুদস্ত ও ক্ষতিগ্রস্ত।

শক্তিশালী মিডিয়া তৈরীর যে স্বপ্ন আমরা আজন্ম লালন করে আসছি, সেই স্বপ্ন পুরণে ইনসাফ পরিবার অক্লান্ত পরিশ্রমে অব্যাহত কাজ করে যাচ্ছেন। হার না মানা এই প্রতিষ্ঠানকে টিকিয়ে রাখতে আমাদের অনেক করণীয় আছে। সে ক্ষেত্রে আমাদের আরও সচেতন ও উদ্যোগী হতে হবে। নিজ দায়িত্বানুভূতি থেকে সাধ্যানুযায়ী ভুমিকা পালন আমাদের নিতান্তই জরুরি।

পরিশেষে ইনসাফ পরিবারকে হৃদয়ের গভীরতম আবেগ থেকে অকৃত্রিম ভালোবাসা ও শ্রদ্ধা জানাই। এবং সংশ্লিষ্ট সকলের জন্য মহান রাব্বে করীমের দরবারে কায়মনোবাক্যে দুআ করি। তিনি ইনসাফকে স্বপ্ন পুরণের পথে এগিয়ে নিয়ে যান। এবং আমাদের ভুলক্রটি মার্জনা করে ইনসাফকে কবুল করুন, আমীন।

Previous post সিলেট জেলা বিএনপির উদ্যোগে ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ
Next post ইহুদিবাদী ইসরাইলের বিরুদ্ধে অধিকার আদায় না হওয়া পর্যন্ত ফিলিস্তিনিরা সংগ্রাম চালিয়ে যাবে: হামাস