ইনসাফপূর্ণ সমাজ গঠনে যাকাতভিত্তিক অর্থ ব্যবস্থা প্রবতর্ণের বিকল্প নেই : চরমোনাই পীর

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর আমীর মুফতী রেজাউল করীম বলেছেন, কুরআন নাজিলের মাস, আত্মশুদ্ধি অর্জনের মাস, গোনাহমুক্ত জীবন গঠনের মাস এবং ইনসাফপূর্ণ সমাজ গঠনে যাকাতভিত্তিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার মাস। মানবতার মুক্তির লক্ষ্যে আল্লাহ রববুল আলামিন মহাগ্রন্থ আল কুরআন নাজিল করেন এ মাসেই পবিত্র কদরের রাতে। কুরআনের শাসন দেশে না থাকায় সমাজ ও রাষ্ট্রের যে দূরাবস্থা তা বলার অপেক্ষা রাখে না। সমাজের রন্দ্রে রন্দ্রে দুর্নীতির যে ভয়াবহ চিত্র, তা যে কোন মানুষকেই ব্যথিত করে।

আজ বুধবার এক অডিও বার্তায় চরমোনাই পীর এসব কথা বলেন।

তিনি বলেণ, রমযান থেকে শিক্ষা নিয়ে সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত সমাজ গঠনে কাজ করতে হবে। পীর সাহেব চরমোনাই বলেন, মানুষের মধ্যে তাকওয়া বা আল্লাহর ভয় না থাকায় মানুষ মহামারী ও দুর্যোগের মধ্যেও অসহায় মানুষর মুখের আহার কেড়ে নিতে দ্বিধা করে না। চুরি-ডাকাতি, খুন, র্ধষণ করতেও একটুকু চিন্তা করে না। তাই দুর্নীতিমুক্ত সমাজ গঠন করতে সকলকে কাজ করতে হবে।

চরমোনাই পীর বলেন, বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের ফলে জনজীবন বিপর্যস্ত। সরকারদলীয় লোকেরা অসহায়-গরীব-দুঃখি মানুষের চাল-ডাল ও তেল চুরির পর এবার নগদ টাকা হরিলুট করছে বলে মিডিয়ায় প্রকাশ।

তিনি বলেন, সরকার যতটুকু ত্রাণ দিয়েছে তার অধিকাংশই তাদের দলীয় নেতা-কর্মীদের তালিকা করে দেয়া। সাধারণ মানুষ বা অন্য দলের লোকদেরকে ত্রাণ দেয়ার পরিমাণ যৎসামান্য। এভাবে একটি রাষ্ট্র চলতে পারে না।

চরমোনাই পীর বলেন, বিশ্বের পরা শক্তিগুলো এখন নিরুপায় হয়ে আসমানের মালিকের দিকে তাকিয়ে আছে। এমতাবস্থায় রমযানের শেষপ্রান্তে নাজাতের দশকে মহান রব্বুল আলামিনের কাছে খাসভাবে সকল প্রকার পাপাচার ছেড়ে তওবা ও ইস্তেগফার করতে হবে। ভবিষ্যতে গোনাহমুক্ত জীবন-যাপনের জন্য আল্লাহর কাছে ওয়াদা করতে হবে। পীর সাহেব বলেন, সেইসাথে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

Previous post দেশের সব মসজিদে ৫ হাজার টাকা করে অনুদান দিলো সরকার
Next post পশ্চিমবঙ্গে ঘূর্ণিঝড় আম্পানে আঘাত; মমতা বললেন সর্বনাশ হয়ে গেছে