ইনসাফ : আঁধার রাতের প্রদীপ

আবু তালহা তোফায়েল | নির্বাহী সম্পাদক ও প্রকাশক : সীমান্তের আহ্বান


মিডিয়া এমন এক বস্তু যার দিকে তাকিয়ে আছে গোটা পৃথিবী। মিডিয়া যা বলে, তা মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য। কিন্তু দুঃখের বিষয়, মিডিয়াতে ইসলামী লেবাসধারী বা ইসলামী মাইন্ডের উল্লেখযোগ্য কারো দখল ছিল না। ফলে ইসলাম ও মানবতার কথা বলতো না কোনো গণমাধ্যম। মানুষের মাঝে মানবতার কথা সত্যাসত্যভাবে উপস্থাপন করার কোনো মাধ্যম নেই। চতুর্দিকে রাতের আঁধারের মত অন্ধকার হয়ে আছে। বাতিল ও তাগুদের গণমাধ্যমে বেষ্টন করে আছে।

৭১ এর পর স্বাধীন এই বাংলার মানচিত্রে ইসলামী ঘরানার সব পেপার ও ম্যাগাজিন বন্ধ করে দেয়া হয়। যে ক’টার ডিক্লেয়ারেশন ছিল, সব বাতিল করে দেয়া হয়। এমনকি মাসিক মদিনারও ডিক্লেয়ারেশন বাতিল করে দেয়া হয়। যাইহোক পরবর্তীতে আবারও চালু হলে কোনো পত্রিকা মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারেনি। এই আঁধারে আলো ফোটাতে পারেনি। বিশ্বের ২য় বৃহৎ মুসলিম এই রাষ্ট্রে প্রতিদিন কোটি ইসলাম প্রিয় মানুষের হৃদয়ের আর্তনাদ প্রকাশ করার মত কোনো মাধ্যম ছিল না। হৃদয়ের ব্যথিতা কথাটা পর্যন্ত গণমানুষের কাছে পৌঁছাতে এমন উল্লেখযোগ্য কোনো গণমাধ্যম/মিডিয়া ছিল না। যখন চতুর্দিকে বাতিল ও তাগুদ অপশক্তির মিডিয়াগুলোর দাপটে সারাদেশ অন্ধকারে নিমজ্জিত, ঠিক তখন ইসলাম ও মানবতার কথা বলার জন্য একবুক সাহস আর একঝাঁক তরুণদের নিয়ে ইনসাফ শুরু করলো তার পথচলা। বলতে শুরু করলো সহস্র কোটি তৌহিদী জনতার হৃদয়ের ব্যথিত কথামালা। লক্ষ কোটি পাঠকের মাঝে পৌঁছাতে লাগলো ইসলামের শ্বাশত বাণী।

অন্ধকার রাতের মত এই ভয়ংকর আঁধারে প্রদীপ জ্বালিয়ে দিয়েছে ইনসাফ। আশার আলো জ্বালিয়েছে ইনসাফ।

আমার সবচেয়ে ভালো লাগে, নিঃস্বার্থভাবে দ্বীন-ইসলামকে প্রাধান্য দিয়ে বস্তুনিষ্ঠ ও নির্ভুল সংবাদ পরিবেশনের পাশাপাশি “ইনসাফ শো”। যা বাংলাদেশের সর্বজন শ্রদ্ধেয় উলামা মাশায়েখদের নিয়ে এই শো করা হয়। ইনসাফের মাধ্যমে তারা জাতিকে ইসলামের দিকে আহ্বান করেন। আর ভালো লাগে, প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে দেশের সর্বজন শ্রদ্ধেয় আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী, আল্লামা নূর হুসাইন ক্বাসেমীসহ উল্লেখযোগ্য উলামা মাশায়েখদের নিয়ে আলোচনা সভার আয়োজন; মনে হয়, এটা ইসলামী এক মারকাজ! স্কলারগণ একের পর এক ইসলামী লেকচার দিয়ে যাচ্ছেন। যা সত্যি ভালো লাগে।

আর আজ আমার প্রিয় সংবাদমাধ্যম ইনসাফ সাফল্যের সাথে অর্ধযুগ পেরিয়ে ৭ম বছরে পা বাড়িয়েছে। হৃদয়ের মণিকোঠা থেকে দোয়া করি, এগিয়ে যাক প্রিয় সংবাদমাধ্যম। যুগ যুগ ধরে ইসলাম ও মানবতার কথা বলে দুর্বার গতিতে এগিয়ে যাক।