মালদ্বীপে দুই শতাধিক বাংলাদেশী করোনায় আক্রান্ত

দক্ষিণ এশিয়ার দেশ মালদ্বীপে প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসে দুই শতাধিক বাংলাদেশী প্রবাসী আক্রান্ত হয়েছেন। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজধানী মালেতে নতুন করে অন্তত পাঁচ বাংলাদেশী করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন বলে দেশটির স্বাস্থ্য সুরক্ষা সংস্থা (এইচপিএ) এক টুইট বার্তায় নিশ্চিত করেছে।

এইচপিএ বলছে, রাজধানী মালেতে করোনার ক্লাস্টার সংক্রমণ হয়েছে। এদিকে, মঙ্গলবার প্রথমবারের মতো দেশটিতে এক বাংলাদেশি প্রবাসীর প্রাণও কেড়েছে করোনা।

মালদ্বীপের স্থানীয় সংবাদমাধ্যম দ্য এডিশন বলছে, দেশটিতে এখন পর্যন্ত ৫৩১ জন করোনা সংক্রমিত হয়েছেন; যাদের অর্ধেকের বেশি বাংলাদেশি প্রবাসী। আক্রান্তদের মধ্যে চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৭ জন।

তবে মঙ্গলবার সকালের দিকে করোনায় আক্রান্ত হয়ে প্রথমবারের মতো এক বাংলাদেশী প্রবাসী মালের একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

মালদ্বীপের ইংরেজি দৈনিক সান বলছে, করোনায় আক্রান্ত এক বাংলাদেশীর শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটায় মালের ইন্দিরা গান্ধী মেমোরিয়াল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। গত বৃহস্পতিবার তাকে এই হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মঙ্গলবার সকালের দিকে মারা যান তিনি।

দ্য এডিশন বলছে, এই রোগটি মালদ্বীপে অস্বাভাবিকভাবে বিশালসংখ্যক প্রবাসীর দেহে সংক্রমণ ঘটিয়েছে। দেশে করোনায় আক্রান্তদের অধিকাংশই বাংলাদেশী নাগরিক। প্রবাসীরা কোয়ার্টারে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে গাদাগাদি করে বসবাস করেন; যেখানে তাদের জন্য সামাজিক দূরত্ব অথবা সংস্পর্শ এড়িয়ে চলা প্রায় কঠিন।

রাজধানী মালে ছাড়াও দেশটির হা আলিফ আতোল, নারুধু, মিলানধু, কাফু আতুল এলাকায় করোনা ছড়িয়ে পড়েছে।