এটা আওয়ামী জাহেলিয়া যুগ: রিজভী

নভেম্বর ১০, ২০১৯ নিজস্ব প্রতিনিধি

বর্তমান যুগ আওয়ামী জাহেলিয়া যুগ মন্তব্য করে বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন,
বর্তমানে আওয়ামী জাহেলিয়াতের যুগ চলছে। নির্দ্বিধায় মানুষ রাস্তাঘাটে মরে পড়ে আছে। নদী-নালা-খাল-বিলের মধ্যে মানুষের লাশ ভাসছে। প্রতিদিন শুধু নারীরাই লাঞ্ছিত হচ্ছে না। শিশুরাও লাঞ্ছনা-ধর্ষণের শিকার হচ্ছে। এটাই তো আইয়্যামে জাহেলিয়া যুগ।

তিনি বলেন, এটাই তো আইয়্যামে জাহেলিয়া যুগ। যে আইয়্যামে জাহেলিয়া যুগের বিরুদ্ধে মহানবী রুখে দাঁড়িয়েছিলেন, সেই যুগের মধ্যে আমাদের বাস করতে হচ্ছে। আমরা মহানবীর (সা:) এর আদর্শ থেকে অনেক দূরে সরে গেছি। তার আদর্শ ধরে রাখলে আমাদের সমাজে কোনো কদাচার-অনাচার আসন গেড়ে বসতো না।

রবিবার (১০ নভেম্বর) সকালে নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ের নীচতলায় পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সা.) উপলক্ষে বিএনপির উদ্যোগে আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, হযরত মুহাম্মদ (সা:) কে সমগ্র বিশ্বের রহমত হিসেবে পাঠানো হয়েছে। তার মতো একজন মহামানবের সম্পর্কে আলোচনা করা অত্যন্ত কঠিন। তৎকালীন আরবের সমাজের যে অবস্থা ছিল, যে অনাচার, ব্যভিচার ছিল তা হযরত মুহাম্মদ (সা:) এর মনকে ব্যথিত করতো। ব্যথিত করতো বলেই সেই অন্ধকারের যুগ, আইয়্যামে জাহেলিয়া যুগের মধ্যেও থেকেও তার পবিত্র আত্মা দিয়ে বুঝতে পেরেছিলেন সমাজে অনাচার চলছে। তখন থেকেই তিনি যুবকদের নিয়ে সংগঠন করেছেন, ন্যায় বিচার করেছেন।

তিনি বলেন, বিএনপি এখন পৃথিবীর শক্তিশালী পর্বতের মত একটি পর্বত। এই বিএনপির বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে কোনো কাজ হবে না। অনেকই তো ষড়যন্ত্র করা হয়েছে কিন্তু কোনোভাবেই তা সফল হয়নি। কারণ এই দেশের জাতীয়তাবাদী শক্তি দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ, তারেক রহমানের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ। এই ঐক্যে যদি কেউ ফাটল ধরানোর চেষ্টা করেন তাহলে তারা নিজেরাই ফেটে যাবেন।

বিএনপির কয়েকজন নেতার পদত্যাগের বিষয়ে ইঙ্গিত করে রিজভী বলেন, হিমালয় পর্বতমালা বলুন, আর রকি পর্বতমালা বলুন। এসব বিশাল বিশাল পর্বতমালায় যদি ঘূর্ণিঝড় হয়। আর তাতে দু একটা পাথর এদিক-সেদিক খসে পড়লেও পর্বতের কোনো ক্ষতি হয় না। তেমনই বিএনপিরও কোনো ক্ষতি হবেনা।

দোয়া মাহফিলে অন্যান্যের মধ্যে অংশ নেন বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, হাবিব উন নবী খান সোহেল, কেন্দ্রীয় নেতা শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানি, মীর সরফত আলী সপু, অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, আমিনুল ইসলাম প্রমুখ। জাতীয়তাবাদী ওলামা দলের সদস্য সচিব মাওলানা নজরুল ইসলামের পরিচালনায় মুনাজাত পরিচালনা করেন ওলামা দলের আহবায়ক মাওলানা শাহ মো. নেছারুল হক।