কাদিয়ানীদের অমুসলিম ঘোষণার দাবিতে নভেম্বরে ঢাকায় ও ডিসেম্বরে সকল বিভাগীয় শহরে খতমে নবুওয়তের মহা-সম্মেলন

নভেম্বর ২, ২০১৯ | নিজস্ব প্রতিনিধি

আজ শনিবার (০২ নভেম্বর) সকাল ১০ টায় আন্তর্জাতিক মজলিসে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়ত বাংলাদেশের খিলগাঁওস্থ কেন্দ্রীয় কার্যলয়ে কেন্দ্রীয় ও ঢাকা মহা নগর কমিটির এক জরুরী বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনটির সেক্রেটারি জেনারেল মাওলানা নূরুল ইসলাম।

‌সভাপতি তাঁর আলোচনায় ব‌লেন, বাংলাদে‌শে ধ‌র্মীয় সংখ্যালঘু সম্প্রদায় অ‌নেক র‌য়ে‌ছে, তা‌দের বিরু‌দ্ধে আমাদের কো‌নো আ‌ন্দোলন নেই। কা‌দিয়ানীরা অমুসলিম সংখ্যালঘু, কিন্তু তারা নি‌জে‌দের প‌রিচয় ‘মুসলমান’ দি‌য়ে মুসলমানদের বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত। তাই সরকার তা‌দের‌কে রাষ্ট্রীয়ভা‌বে অমুস‌লিম সংখ্যালঘু ঘোষণা ক‌রতে হবে। যাতে তারা মুসলমাদের ঈমান নিয়ে ছিনিমিনি খেলতে না পারে। যতদিন সরকার রাষ্ট্রীয় ভাবে কাদিয়ানীদের অমুসলিম সংখ্যালুঘু ঘোষণা করবে  না ততদিন তাহাফফুজে খতমে নবুওয়তের আন্দোলন চলবে।

এসময় বৈঠকে আরও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কমিটির জয়েন্ট সেক্রেটারি মাওলানা মুহিউদ্দিন রাব্বানী, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, মাওলানা আব্দুল কাইউম সোবহানী, মাওলানা জহুরুল ইসলাম, মাওলানা শিব্বির আহমদ কাসেমী, মাওলানা আশিকুল্লাহ, মাওলানা আব্দুর রশিদ, মুফতি মুহাম্মাদুল্লাহ, মাওলানা সুলতান মাহমুদ, মাওলানা মুমিনুল ইসলাম, মাওলানা রাশেদ বিন নুর এবং মুফতী সুলতান মাহমুদ (সাভার)।

বৈঠকে উপস্থিত ওলামায়ে কেরামগন বলেন, কাদিয়ানীদের রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণার আন্দোলনকে আরও জোরদার করতে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়তকে মজবুত এবং বেগবান করার বিকল্প নেই।

কেন্দ্রীয় কমিটির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা রাশেদ বিন নূর ইনসাফকে জানিয়েছেন, সংগঠনটি তাদের কার্যক্রম এবং আন্দোলনকে জোড়ালো করতে আজকের মিটিংয়ে দুটি গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে।

ক. চলতি নভেম্বর মাসের মধ্যে আন্তর্জাতিক মজলিশে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়ত বাংলাদেশের ঢাকার সকল জোনে মহা-সম্মেলন করবে।
তার মধ্যে উত্তরা, সাভার, কামরাঙ্গীরচরের সাম্ভাব্য তারিখ নির্ধারণ হয়। স্থানীয় কমিটি আলোচনা করে ও সকল মেহমানদের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করে তারিখ ঘোষণা করা হবে।
খ. আগামী ডিসেম্বর মাসের মধ্যে সংগঠনটি দেশের সকল বিভাগীয় শহরে খতমে নবুওয়ত মহা-সম্মেলন করবে।