করোনাভাইরাস: লাগবে পাঁচ কেজি কিনছে ২৫ কেজি

করোনাভাইরাসের আতঙ্কে ভিড় বেড়েছে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের বাজারে। সাধারণ মানুষ প্রয়োজনের তুলনায় বেশি পরিমাণে পণ্য কিনছে। ফলে বাজারে বিরূপ প্রভাব পড়েছে। চাল, আটা, মসুর ডাল, ডিম, মুরগি, আদাসহ বিভিন্ন পণ্যের দাম বেড়েছে।

সরকারের বিপণন সংস্থা ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশও (টিসিবি) বুধবার (১৮ মার্চ) তাদের দৈনন্দিন খুচরা বাজারদরের প্রতিবেদনে বিষয়টি তুলে ধরেছে।

ব্যবসায়ীরা বলেছেন, হঠাৎ করেই বাজারে ক্রেতাদের চাপ পড়েছে। করোনাভাইরাসের আতঙ্কে তারা নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন পণ্য কিনে মজুত করছে। এ কারণে কোনো কোনো পণ্যের দাম বাড়তি বলে তারা জানান।

এদিকে সচিবালয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি সংবাদ সম্মেলনে বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে আতঙ্কিত হয়ে কোনো পণ্য অতিরিক্ত কেনার প্রয়োজন নেই। খুচরা বাজারে এরই মধ্যে বিক্রিতে কিছুটা প্রভাব পড়েছে উল্লেখ করে টিপু মুনশি বলেন, একশ্রেণির মানুষ আছে, তারা বাজারে হুমড়ি খেয়ে পড়েছে। কিন্তু কেউ যেন স্বাভাবিক কেনাকাটার চেয়ে অতিরিক্ত কেনাকাটা না করে। যে কোনো অপপ্রচার থেকে সতর্ক থাকতে তিনি সবাইর প্রতি আহ্বান জানান। দেশে নিত্যপ্রয়োজনীয় সব পণ্যের মজুত, সরবরাহ স্বাভাবিক রয়েছে। তাই বাড়তি কেনাকাটার দরকার নেই।

সংশ্লিষ্টরা জানান, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে একজন মারা গেছেন এটা জানার পর গতকাল থেকে নিত্যপণ্যের বাজারে ক্রেতাদের ভিড় বেশি বেড়েছে। সাধারণ মানুষ প্রয়োজন ছাড়া বাসা থেকে বের হতে চাইছে না। গতকাল রাজধানীতে রাস্তাঘাট, পাবলিক পরিবহনগুলোতে যাত্রী ছিল হাতেগোনা।