এই সময় টেলিভিশনগুলোতে অশ্লীল নাচ গান, নগ্ন সিনেমা বিজ্ঞাপন বন্ধ রাখুন: মাওলানা ইসলামাবাদী

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাসের সংক্রমণকালীন এই সময়ে টেলিভিশনগুলোতে অশ্লীল নাচ-গান, নগ্ন সিনেমা বিজ্ঞাপন বন্ধ রাখার আহবান জানিয়েছেন হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী।

তিনি বলেন, প্রাণঘাতী মহামারী নোভেল করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বর্তমান বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়েছে এবং বৈশ্বিক মহামারীর রূপ নিয়েছে। আধুনিক বিজ্ঞানীরা এর কারণ যাই বলুক, এটা নিঃসন্দেহে আল্লাহ তায়ালার গজব। কারণ, মহাগ্রন্থ আল কুরআন ও মহানবী হজরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহী ওয়া-সাল্লাম এর হাদিসের পবিত্র বাণী অনুযায়ী মানবজাতির জীবনে অশ্লীলতা, নগ্নতা, বেহাপনা, পাপাচার, অন্যায়, অনাচার ও গুনাহের সীমা লঙ্ঘনের কারণে পৃথিবীতে প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও মহামারী আপতিত হয়। আল্লাহ তায়ালার বিধিবিধান, আদেশ-নিষেধ লঙ্ঘনের কারণে এবং শাসক গোষ্ঠীর জুলুম-অত্যাচারের শাস্তিস্বরূপ পৃথিবীতে প্রাণঘাতী মহামারি ভাইরাস ও ধ্বংসাত্মক দুর্যোগ পাঠানো হয়। নির্দিষ্ট দু-এক প্রকার গোনাহের কারণে শাস্তি হয়, বিষয়টি এমন না, বরং জীবন ধারণের নানাদিক ও বিষয়ে আল্লাহর আইনের বিরুদ্ধাচরণ হলে পৃথিবীতে বিপর্যয় নেমে আসে।

মঙ্গলবার (৭ এপ্রিল) সংবাদমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

মাওলানা ইসলামাবাদী বলেন, বর্তমান গোটা বিশ্ব অশ্লীলতা, ন্যুডিজমে ছেয়ে গেছে। নৃত্য, অশ্লীল ফিল্ম, টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে নগ্ন নাচ-গান, নাটকে হায়া লজ্জা বিধ্বংসী ও চরিত্র হানিকর কথোপকথন, অশ্লীল বিজ্ঞাপন, পত্রপত্রিকায়, ম্যাগাজিনে ইলেকট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়াতে অশ্লীল ছবি, ভিডিও, নারী-পুরুষের অশ্লীল দৃশ্য এখন খুবই সহজলভ্য। ইন্টারনেট, ইউটিউবের সহজলভ্য পর্ণো ছবি ও ভিডিওর কারণে অধিকাংশ তরুণ-তরুণী, পারিবারিক ও সামাজিক মূল্যবোধ ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে।
ইসলামে মাদক যেমন হারাম,অশ্লীলতাও তেমনি হারাম। মাদকসেবী সে নিজেকে ধ্বংস করে আর অশ্লীলতা একটি জাতিকে ধ্বংস করে দেয়। যোগ করেন তিনি।

মাওলানা আজিজুল হক ইসলামাবাদী আরো বলেন, কুরআন মাজিদে সুরা আর-রূমের ৪১ নং আয়াতে আল্লাহ তায়ালা ইরশাদ করেছেন, ‘মানুষের কৃতকর্মের দরুন স্থলে ও সাগরে বিপর্যয় ছড়িয়ে পড়ে, ফলে তাদেরকে তাদের কোনো কোনো কাজের শাস্তি তিনি আস্বাদন করান, যাতে তারা ফিরে আসে।’ রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহী ওয়া-সাল্লাম বলেছেন, যখন কোন সম্প্রদায়ের মাঝে অশ্লীলতার প্রসার ঘটে, তখন তাদের মাঝে মহামারি এবং এমন দুর্ভিক্ষ দেখা দেয়, যার নমুনা তারা পূর্বপুরুষদের মাঝে দেখেনি। (ইবনে মাজাহ: ৪০১৯)

তিনি বলেন, আমাদের মনে রাখতে হবে, এই দুনিয়ার স্রষ্টা একমাত্র আল্লাহ তায়ালা। তিনিই এর সবকিছুর নিয়ন্ত্রক। তিনি কোনো জাতি ও সম্প্রদায়ের অবস্থার পরিবর্তন করেন না, যতক্ষণ না স্বয়ং তারাই নিজেদের অবস্থা, কাজকর্ম, অনৈতিকতা ও অবাধ্যতায় পরিবর্তিত করে না নেয়। যখন আল্লাহ তায়ালা কোনো ব্যক্তি বা সমষ্টিকে আজাব বা শাস্তি দিতে চান, তখন কেউ তা রদ করতে পারে না। আল্লাহর নির্দেশের বিপরীতে তার সাহায্যার্থে কেউ এগিয়ে আসতে পারে না। (সূরা রা’দ: ১১ )

সুতরাং মহান আল্লাহর কুদরতি শক্তির মোকাবেলা করার ক্ষমতা কারো নেই। তিনিই একমাত্র পৃথিবীর সুপার পাওয়ার রাষ্ট্রের ক্ষমতাবানদের ক্ষমতার একচ্ছত্র মালিক। যিনি সারা পৃথিবীবাসীকে অস্ত্র ও যুদ্ধ ছাড়া লকডাউন করে রেখেছেন।

সরকারের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, করোনাভাইরাস মোকাবেলা নয়; জীবনহানিকর এই কঠিন মহামারি ও বিপদ থেকে মুক্তির লক্ষে মহান আল্লাহ তায়ালার রহমত কামনায় দর্শকদের গুনাহ মুক্ত রাখার জন্য টেলিভিশন চ্যানেলগুলোতে অশ্লীল নাচ গান, নাটক, সিনেমা এবং বিজ্ঞাপন বন্ধ রাখুন। সেসময়ে পবিত্র কুরআন তেলাওয়াত, তাফসীর, হাদীসের ব্যাখা, সীরাতে রাসূল, সন্ত্রাস, দুর্নীতি, মাদক, অন্যায় অনৈতিকতা ও পাপাচারের কারণে দুনিয়া ও আখেরাতে শাস্তি, মানুষের জীবনঘনিষ্ট আলোচনা এবং মহান আল্লাহ তায়ালার নিকট তাওবা ইস্তেগফার, দুআ-মুনাজাত বিষয়ক ইসলামী অনুষ্ঠান সম্প্রচারের ব্যাবস্থা করুন। ইন্টারনেট, ইউটিউব থেকে পর্ণো ছবি ও ভিডিও বন্ধ করার কার্যকর উদ্যোগ নিন। অন্যথায় আল্লাহর নারাজী ও গজব থেকে কেউ রেহাই পাবেনা।