করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে চট্টগ্রামের ৫ উপজেলায় রেড জোন

চট্টগ্রাম মহানগর ছাড়িয়ে এবার ‘টেনশন’ বাড়াচ্ছে উপজেলা পর্যায়ে করোনা আক্রান্তদের হারে। বেশি আক্রান্ত হয়েছেন ৩১-৪০ বছর বয়সের মানুষ। কম আক্রান্ত হয়েছেন ০-১০ বছরের শিশু। তা ছাড়া উপজেলার মধ্যে আক্রান্তের দিক দিয়ে শীর্ষে হাটহাজারী উপজেলা। সেখানে আক্রান্তের সংখ্যা ২৩৮ জন। দ্বিতীয় পটিয়া উপজেলা। আক্রান্ত ২১০ জন। আক্রান্ত কম হয়েছে মিরসরাইয়ে ,২০ জন। ১০০ জনের বেশি আক্রান্ত হওয়ায় এবার নগরীর ১২টি থানা রেড জোনের পর উপজেলার ৫টি থানাও রেড জোনের আওতায় এসেছে। তবে উপজেলাগুলোর মধ্যে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৩৯৬ জন বলে চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে নিশ্চিত করা হয়েছে।

সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রামে ১১ জুন পর্যন্ত মোট আক্রান্ত হয়েছেন ৪ হাজার ৫৯৩ জন। এর মধ্যে নগরীর বাইরে উপজেলাতে আক্রান্ত হয়েছেন ১ হাজার ৩৯৬ জন। বাকি আক্রান্ত নগরীর বিভিন্ন থানা এলাকার। এতে শিশু থেকে শুরু করে বয়োবৃদ্ধারাও রয়েছেন। তবে শিশুরা কম হলেও ৩১-৪০ বছর বয়সের লোকজন বেশি আক্রান্ত হচ্ছেন।

চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন ডা. সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, চট্টগ্রাম নগরীর বাইরে উপজেলায় করোনা রোগী কম। তাই আমাদের হিসাবে যেসব জায়গায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১০০ ছাড়িয়েছে সেসব এলাকাকে রেড জোন ধরা হয়েছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, চট্টগ্রামে ৩ মে পর্যন্ত মোট আক্রান্ত ছিল মাত্র ৮১ জন। এর মধ্যে মহানগরীর ৫০ জন এবং উপজেলার ৩১ জন। দ্বিতীয় মাসে ৩ জুন সেই সংখ্যা দাঁড়ায় ৩ হাজার ৩৯৭ জন। কিন্তু গত ৬ দিনে ৮৮১ জন বেড়ে ৪ হাজার ছাড়িয়েছে। এতে উপজেলাতেই রয়েছেন ৪১২ জন।

স্বাস্থ্যবিধি না মেনে অবাধ যাতায়াতের কারণে উপজেলার বাসিন্দারা কমিউনিটি ট্রান্সমিশনের শিকার হয়েছেন। যে কারণে শুধু করোনা আক্রান্তের দ্বিতীয় মাসেই ১৪ উপজেলার মধ্যে পাঁচ উপজেলায় করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা প্রায় দেড় শতাধিক ছাড়িয়েছে। তা ছাড়া পাঁচ উপজেলার মধ্যে হাটহাজারীতে ২৩৮ জন, পটিয়াতে ২২০ জন, সীতাকুন্ডে ১৬৮ জন এবং বোয়ালখালীতে ১৫৬ জন, চন্দনাইশে ১১৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন। বাকি উপজেলাগুলো আক্রান্তের মধ্যে এখনো ১০০ জনের নিচে রয়েছেন। অন্য উপজেলার মধ্যে সাতকানিয়া উপজেলায় ৭৯ জন, আনোয়ারায় ৪৭, ফটিকছড়িতে ৩৭, মিরসরাইয়ে ২০, লোহাগাড়ায় ৭৭, সন্দ্বীপে ২৫, রাঙ্গুনীয়াতে ৭, বাঁশখালীতে ৭৬ এবং রাউজানে ৬৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।

Previous post ৫ ঘণ্টা চেষ্টা করেও চিকিৎসা না পেয়ে মারা গেলেন আ. লীগ নেতা
Next post ভারতে করোনা আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩ লাখ!