করোনাভাইরাস: চাকরি হারিয়ে বাড়িভাড়া দিতে পারছে না লাখ লাখ মানুষ

মহামারী করোনাভাইরাসের কারণে যুক্তরাষ্ট্রে চাকরি হারিয়ে লাখ লাখ মানুষ বেকার হয়েছে পড়েছে।

তাদের মধ্যে সাড়ে ৬৬ লাখ মানুষ বেকারত্ব ভাতার জন্য আবেদন করেছেন। অনেকে আবার অনলাইনে অনুদান চাচ্ছেন। এদের মধ্যে অনেকেরই এখন বাড়িভাড়া দেয়ার মতো সামর্থ্য নেই।

আর বাড়িভাড়া না দিতে পারা এমনই এক দম্পতি নিউইয়র্কের বাসিন্দা ব্রিটানি ব্রুক ও তার স্বামী ম্যাথিউ হোয়াইটফিল্ডের। ব্রিটানি একটি বিদ্যালয়ে সঙ্গীতের শিক্ষক ছিলেন। আর তার স্বামী ম্যাথিউ অভিনয়ের পাশাপাশি করতেন ওয়েটারের কাজ। কিন্তু বর্তমানে তারা দুজনই চাকরিচ্যুত হওয়ায় বিল পরিশোধ নিয়ে চরম বিপাকে পড়েছেন।

শুধু এ দু’জনই নন, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে যুক্তরাষ্ট্রে তাদের মতো চাকরি হারিয়ে বাড়িভাড়াসহ অন্যান্য বিল দিতে পারছেন না সব শ্রেণির কয়েক লাখ মানুষ।

আবাসন খাতের বিশ্লেষক ও বিনিয়োগকারী সংস্থা আমহার্স্টের তথ্য অনুযায়ী, করোনা সংক্রমণের কারণে যুক্তরাষ্ট্রের ২৬ শতাংশ ভাড়াটিয়ার বাড়িভাড়া পরিশোধে সাময়িক অর্থ সহায়তার প্রয়োজন হবে। প্রতি মাসে যার পরিমাণ প্রায় ১ হাজার ২০০ কোটি ডলার।

এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের সরকার দেশটির অর্থনৈতিক সংকট মোকাবেলায় ২ দশমিক ২ ট্রিলিয়ন ডলারের সহায়তা প্যাকেজ ঘোষণা করেছে।

তবে প্রত্যেক আমেরিকানকে ১ হাজার ২০০ ডলারের চেক ও প্রত্যেক শিশুকে যে ৫০০ ডলার করে দেয়ার কথা বলা হয়েছে, তা এপ্রিলের দ্বিতীয় ভাগের আগে প্রদান করা সম্ভব হবে না।

হাজার হাজার ক্ষুদ্র ও বৃহৎ ব্যবসা বন্ধ হয়ে যাওয়ায় বেকার ভাতার জন্য ২১ মার্চ পর্যন্ত আবেদন করেছে সাড়ে ৬৬ লাখ আমেরিকান নাগরিক।