করোনাভাইরাস ‘ছড়িয়ে দেওয়ায়’ চীনের বিরুদ্ধে আমেরিকায় মামলা

‘করোনা ভাইরাস ছড়ানোয়’ চীনের বিরুদ্ধে  প্রথম মামলা করেছে আমেরিকা। করোনাভাইরাস মোকাবেলায় যথেষ্ট পদক্ষেপ না নেয়ায় এবং এ কারণে এটি বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ায় অর্থনৈতিক ক্ষতির অভিযোগ তুলে এই মামলা করেছে আমেরিকার একটি অঙ্গরাজ্য।

স্থানীয় সময় মঙ্গলবার আমেরিকার মিসৌরি অঙ্গরাজ্য সরকার চীন সরকার ও দেশটির ক্ষমতাসীন কমিউনিস্ট পার্টির বিরুদ্ধে মামলাটি করে। করোনা ইস্যুতে ভাইরাসটির সূতিকাগার চীনের বিরুদ্ধে এটিই প্রথম মামলা।

মিসৌরির অঙ্গরাজ্যের অ্যাটর্নি জেনারেল এরিক স্মিথ সরকারের পক্ষে এই মামলা করেন। তিনি চীনের বিরুদ্ধে করোনাভাইরাস নিয়ে মিথ্যাচারেরও অভিযোগ করেছেন।

বৈশ্বিক মহামারী হিসেবে করোনার বিস্তারের নেপথ্যে চীনের দায়িত্বে অবহেলাকে কারণ হিসেবে হাজির করেছে মিসৌরি সরকার। বলা হচ্ছে, চীন ভাইরাসটি নিয়ে লুকোচুরি করেছে। এই ভাইরাস যে এতটা সংক্রামক তা তারা আগে জানায়নি। এ নিয়ে তথ্য গোপন করেছে কমিউনিস্ট পার্টির নেতৃত্বাধীন সরকার।

মামলায় করোনা ভাইরাসের কারণে লকডাউন থাকায় মিসৌরি অঙ্গরাজ্যের মানুষের অর্থনৈতিক ক্ষতির বিষয়টি সামনে আনা হয়েছে। বলা হয়েছে, কোটি কোটি মার্কিন ডলারের ক্ষতি হয়েছে চীনের অবহেলার কারণে।মামলায় ক্ষতিপূরণও দাবি করা হয়েছে।

মিসৌরির অ্যাটর্নি জেনারেল এরিক স্মিথ মামলা দায়েরের পর বলেন, চীন সরকার কোভিড -১৯ এর বিপদ ও এর অতি-সংক্রামক প্রকৃতির বিষয়ে বিশ্বকে মিথ্যা বলেছিল। এছাড়া প্রথম যে চিকিৎসক এই ভাইরাস সম্পর্কে সচেতন করে তাকেও এ নিয়ে কথা বলতে দেয়া হয়নি।

তিনি আরও বলেন, সব দিক দিয়েই চীন মহামারি এই রোগের বিস্তার থামাতে খুব কম চেষ্টাই করেছে। আর এ কারণে তাদের বিচার হতে হবে। মিসৌরিসহ বিশ্বের ওপর করোনার প্রাণহানি, যন্ত্রণা ও অর্থনৈতিক ক্ষতি সাধিত হচ্ছে তার জন্য চীনই দায়ী।

সূত্র : সিএনএন