করোনার প্রথম ভ্যাকসিনটি নিয়ে আক্রান্তরা বললেন একটুও ব্যথা পাইনি

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের পরীক্ষামূলকভাবে আমেকিরায় শুরু হয়েছে ভ্যাকসিন প্রদান।

সোমবার (১৬ মার্চ) স্থানীয় সময় কেপিডাব্লিউআরআইয়ে (কেইসার পারমানেন্ট রিসার্চ ইনস্টিটিউট) প্রথম এই ভ্যাকসিন দেওয়া হয়। প্রথমবারের মতো সিয়াটলে এই ভ্যাকসিন নিয়েছে জেনিফার হেলারসহ চারজন স্বেচ্ছাসেবক।

এমআরএনএ ১২৭৩ (mRNA 1273) নামের ভ্যাকসিনটি প্রথমবারের মতো দেওয়া হয়েছে জেনিফার হেলারসহ আরো তিনজনের শরীরে। ৪৩ বছর বয়সী জেনিফার পেশায় একটি প্রকৌশলী কম্পানির ম্যানেজার। অপর দুজনের মধ্যে একজন ৪৬ বছর বয়সী প্রকৌশলী, আরেকজন ২৫ বছর বয়সী ইনডিপেনডেন্ট গ্লোবাল হেলথ রিসার্চ সেন্টারের এডিটরিয়াল কো-অর্ডিনেটর। ভ্যাকসিন নেওয়ার পর প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন ওই চার নাগরিক। জেনিফারের মতে করোনার ভ্যাকসিন অন্যান্য ফ্লু ভ্যাকসিনের মতো ব্যথা সৃষ্টি করে না।

এ বিষয়ে কেপিডাব্লিউআরআই এর ঊর্ধ্বতন তদন্তকারী চিকিৎসক লিসা জ্যাকসন বলেন, আমরা গর্বিত যে এই মহামারি রোগের ভ্যাকসিন দেওয়ার জন্য আমাদের নির্বাচন করা হয়েছে, আমরা ভালোভাবে প্রস্তত আছি এবং করোনার মোকেবেলায় সচেষ্ট ভূমিকা পালন করছি।

Leave a Reply