করোনা পরীক্ষার ফল আসার আগেই মৃত্যু হল তরুণীর

করোনাভাইরাসের পরীক্ষার ফলের অপেক্ষায় ছিলেন সমাজকর্মী নাতাশা ওট (৩৯)।

কিন্তু শুক্রবার নিজ ফ্ল্যাটে তাকে মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে।

অতিরিক্ত ঝুঁকিপূর্ণ রোগীদের কিট সুরক্ষার পর তিনি অসুস্থ হয়ে পড়লে ফ্লু ভাইরাস তাকে আক্রান্ত করেছে কিনা; সেই অপেক্ষায় ছিলেন এই এইচআইভি কাউন্সেলর।

যুক্তরাষ্ট্রের নিউজ ওরলিন্স থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়।

ফেসবুক পোস্টে তার এক বন্ধু বলেন, নাতাশার স্বাস্থ্য ভালো ছিল। বৈশ্বিক মহামারীতে আক্রান্ত অন্যদের তিনি সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন।

কাজেই কোভিড-১৯ ভাইরাস নিয়ে তামাশা করার সময় শেষ হয়েছে বলে মন্তব্য জশের। তিনি জানান, নিজেকে, প্রিয়জনকে এবং সবাইকে নিরাপদ রাখার সময় এখনই। কিন্তু গত ১০ মার্চ তার শরীরে সর্দির লক্ষণ দেখা দেয়।

এটি শ্বাস-প্রশ্বাসজনিত ঠাণ্ডা ও কিছুটা জ্বরও বলে নিজের বন্ধুকে জানান ওই সমাজকর্মী। নিজের কর্মস্থলেই তিনি করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করতে পারতেন, কিন্তু সেখানে মাত্র পাঁচটি কিট অবশিষ্ট ছিল। নিজের ঝুঁকি বেশি না বলে মনে করে অতিঝুঁকিপূর্ণ লোকদের জন্য তিনি কিটগুলো ছেড়ে দেন। পরে চিকিৎসকের কাছে গিয়ে ফ্লুর পরীক্ষা করলে তাতে নেগেটিভ আসে।

শুক্রবার বন্ধুকে বার্তা পাঠিয়ে সে জানায়, আমি মনে করছি না যে আমার কোনো পরীক্ষা লাগবে, যদি না আমার জ্বর আসে। সব কিছুই ভালো যাচ্ছে। কিন্তু সপ্তাহের শেষ দিনে তিনি ক্লান্ত হয়ে যান এবং তার জ্বর আসে।

গত সোমবার আবার তাকে করোনাভাইরাসের পরীক্ষা করা হয়। আগামী সোমবার পরীক্ষার ফল পাওয়ার কথা ছিল।