কাশ্মীরে সামাজিক শান্তি সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়ে গেছে

ভারতের প্রধান বিরোধীদল কংগ্রেসের সিনিয়র নেতা মনীশ তিওয়ারি বলেছেন, ‘গত ৫ আগস্ট কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তের পরে (৩৭০ ধারা প্রত্যাহার) কাশ্মীরে সামাজিক শান্তি সম্পূর্ণ ধ্বংস হয়ে গেছে। যেখানে সামাজিক শান্তি থাকে না, সেখানে অর্থনৈতিক অগ্রগতি হতে পারে না।’

বুধবার (১৮ মার্চ) সংসদের নিম্নকক্ষ লোকসভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

মনীশ তিওয়ারি বলেন, ‘এখন সরকারও হয়তো মনে করছে যে, ৫ আগস্টের সিদ্ধান্তটি (৩৭০ ধারা প্রত্যাহার) একটি বড় ভুল ছিল এবং এটিকে আবারও বিবেচনা করা উচিত।’

তিনি বলেন, কাশ্মীরে স্কুলগুলো সাত মাস ধরে বন্ধ থাকায় সবচেয়ে খারাপ প্রভাব পড়ছে শিশুদের শিক্ষার উপরে। কাশ্মীর চেম্বার অফ কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের একটি প্রতিবেদনের বরাত দিয়ে মনীশ তিওয়ারি বলেন, কাশ্মীরে চার মাসে ১৮ হাজার কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। সেখানে আপেল উৎপাদন ও পর্যটন শিল্প খারাপ অবস্থায় রয়েছে।

মনীশ তিওয়ারি বলেন, কাশ্মীরের বাজেট সম্পর্কিত আলোচনা সেখানকার বিধানসভায় অনুষ্ঠিত হলে ভালো হতো। কাশ্মীরের বিষয়টি সুপ্রিম কোর্টে বিবেচনাধীন এবং আমরা আশাবাদী যে ইতিবাচক ফল আসবে।

ভারত দখলকৃত স্বাধীনতাকামী কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ডা. ফারুক আবদুল্লাহর মুক্তি নিয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করে মনীশ তিওয়ারি আরও দুই নেতাকে শিগগিরি মুক্তি দেওয়ার দাবি জানান। তিনি বলেন, গত জানুয়ারিতে সুপ্রিম কোর্টের সিদ্ধান্তের পরেও সরকার কাশ্মীরে পুরোপুরি ইন্টারনেট বহাল করতে পারেনি। এটা আদালতের সিদ্ধান্তের অবমাননা নয় কী?

সূত্র: পার্সটুডে

Previous post এবার আমেরিকার নৌবাহিনীর জাহাজেও করোনা হানা
Next post করোনা সারাতে নিশ্চিতভাবে কার্যকর করছে জাপানের ওষুধ, বলছে চীন

Leave a Reply