ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | মুসলিম বিশ্ব ডেস্ক


মুসলিম বিশ্বের অন্যতম প্রভাবশালী নেতা ও পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের প্রশ্ন কাশ্মীরে চলমান সঙ্কট নিয়ে বিশ্ববাসী নীরব কেন?

তিনি হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছেন, এ অঞ্চলে মুসলমানদের ‘জাতিগতভাবে নির্মূল’ করতে চাইলে মুসলিম বিশ্বে চরম প্রতিক্রিয়া তৈরি হবে।

বৃহস্পতিবার (১৫ আগস্ট) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম টুইটারে এক বার্তায় এসব কথা বলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী।

আজ (বৃহস্পতিবার) ভারতের স্বাধীনতা দিবস। কাশ্মীরে ভারত সরকারের মানবাধিকার লঙ্ঘন ও নির্মমতা চালানোর প্রতিবাদে পাকিস্তান জুড়ে দিনটি কালো দিবস হিসেবে পালিত হচ্ছে। কালো দিবস উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানও টুইটারে কালো প্রোফাইল পিকচার দিয়েছেন।

মোদী সরকারের সমালোচনা করে টুইটারে ইমরান খান লেখেন, ভারতের দখলকরা কাশ্মীরে কারফিউর ১২তম দিন। ইতোমধ্যেই সেনা অধ্যুষিত ওই এলাকায় আরও সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। পুরো এলাকা সম্পূর্ণ যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন- এর সঙ্গে রয়েছে অতীতে গুজরাটে মোদীর জাতিগতভাবে মুসলিম নিধনের উদাহরণ।

‘বিশ্ববাসী কী নীরব থেকে কাশ্মীরে (বসনিয়া ও হার্জেগোভেনিয়ার) স্রেব্রেনিকার মতো আরেকটি মুসলিম নিধন দেখতে চায়? আমি আন্তর্জাতিক মহলকে হুঁশিয়ার করতে চাই, যদি তাই হয়, তাহলে মুসলিম বিশ্বে তা তীব্র প্রতিক্রিয়া তৈরি করবে। আর এতে করে মৌলবাদ ও সহিংসতার নতুন অধ্যায়ের সূচনা হবে।’

এর আগে বুধবার (১৪ আগস্ট) পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসে ভারত অধ্যুষিত কাশ্মীরিদের সংগ্রামে সংহতি প্রকাশ করে ইমরান খান বলেন, ‘যেহেতু কাশ্মীরিরা লড়াকু ও মরতে ভীত নয়, সেহেতু মোদীর ওই অঞ্চল দখলের স্বপ্ন দেখা বৃথা। ভারত বীর কাশ্মীরিদের পরাধীন করে রাখতে পারবে না।’