কোয়ারেন্টাইন থেকে মুক্তি চেয়ে গাজীপুরে ইতালীফেরত প্রবাসীদের বিক্ষোভ

করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে ইতালী থেকে ফিরে আসা ৪৮জনের মধ্যে ৪৪জন কোয়ারেন্টাইনের জন্য গাজীপুরের পূবাইল এলাকার ‘মেঘডুবি ২০শয্যা বিশিষ্ট মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র’ হাসপাতালে অবস্থান করছেন।

সোমবার সকালে (১৬ মার্চ) সেখান থেকে মুক্ত হতে তারা বিক্ষোভ করেছেন।

এদিকে লক্ষণীয় মাত্রায় জ্বর থাকায় অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য রোববার এ হাসপাতাল থেকে ঢাকায় পাঠানো চারজনের স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্ট সোমবার বিকেল পর্যন্ত হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে পৌছেনি।

গাজীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল জাকী জানান, করোনা ভাইরাস থেকে রক্ষা পেতে কোয়ারেন্টাইনের জন্য ইতালী থেকে ফেরত আসা ৪৮জন বাংলাদেশী প্রবাসীকে রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দর থেকে শনিবার মধ্যরাতে দু’টি বাসযোগে গাজীপুরের পূবাইল এলাকার ‘মেঘডুবি ২০শয্যা বিশিষ্ট মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র’ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এ হাসপাতালে ৭০জনকে আইসোলেশনের জন্য ব্যবস্থা করে গত কয়েকদিন ধরে প্রস্তুত রাখা হয়েছিল। ইতালী ফেরত এ কেন্দ্রের সবাইকে গুরুত্ব সহকারে যত্নে রাখা হয়েছে। তারপরও তারা নানা অভিযোগ তুলে এখানে থাকতে চাচ্ছেন না। এখান থেকে বের হয়ে যেতে সোমবার সকালেও তারা হৈচৈ করেছেন।

তিনি জানান, এরআগে রোববার বিকেলও তারা বিক্ষোভ করে। রোববার বিক্ষোভকারীরা ওই হাসপাতালের ভেতরের কলাপসিবল গেইটের তালা ভেঙ্গে হাসপাতাল চত্বরে বের হয়ে পড়েন। এসময় তাদের অনেক বুঝিয়ে ভেতরে নেয়া হয় এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করা হয়। বর্তমানে হাসপাতালের পরিবেশ শান্ত রয়েছে। হাসপাতাল এলাকায় পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

গাজীপুরের সিভিল সার্জন ডা. মো: খায়রুজ্জামান জানান, গাজীপুরের পূবাইল এলাকার ‘মেঘডুবি ২০শয্যা বিশিষ্ট মা ও শিশু কল্যাণ কেন্দ্র’ হাসপাতালে কোয়ারেন্টাইনের জন্য আনা ইতালী ফেরত ৪৮জনের মধ্যে ৪জনের দেহে লক্ষণীয় মাত্রায় জ্বর থাকায় তাদেরকে অধিকতর পরীক্ষা-নিরীক্ষার জন্য উত্তরার কুয়েত মৈত্রী হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। স্বল্প সময়ের মধ্যে তাদের রিপোর্ট পাওয়া যাবে। রিপোর্টে তাদের কারো শরীরে করোনা ভাইরাস পজেটিভ হলে এ হাসপাতালে অবস্থানরত ৪৪জনকে কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। কারণ তারা ঢাকায় পাঠানো ব্যক্তিদের সাথে ছিলেন। যদি স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্টে সবার করোনা ভাইরাস নেগেটিভ হয় তাহলে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি স্বাপেক্ষে হাসপাতালে অবস্থানরতদের হোম কোয়ারেন্টাইনের জন্য পাঠিয়ে দেওয়া হবে। তবে আপাততঃ এ হাসপাতালে অবস্থনরতরা সবাই ভাল আছেন। তাদের আর কোনো সমস্যা নেই।

তিনি আরো জানান, এখানে থাকা ইতালী প্রবাসীরা ধৈর্য্য হারিয়ে ফেলছে। তাদের বিষয়ে তারা দ্রুত সিদ্ধান্ত চায়। সোমবার সকালে গাজীপুরের জেলা প্রশাসক এসএম তরিকুল ইসলাম হাসপাতাল পরিদর্শন করেছেন। এসময় হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়ার দাবী জানিয়ে কোরেন্টাইনে থাকা ইতালী ফেরত কয়েকজন হৈচৈ করেছে। তবে তাদের বেলায় সরকারি সিদ্ধান্তের বাইরে কোনো কিছু করার নেই। হাসপাতালে রেখে তাদের করোনা সংক্রমনের আলামত আছে কি-না তা পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। এখানে তাদেরকে করোনা ভাইরাস বিষয়ক সচেতনতামূলক পরামর্শও দেয়া হচ্ছে।

Leave a Reply