ফাইল ছবি

যাদের হাতে ক্ষমতা থাকে তারাই বেশি দুর্নীতি করে বলে দাবি করে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, দেশের সবাই প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে দুর্নীতিতে যুক্ত। এ কারণে দুর্নীতি নির্মূল করা কঠিন।

আজ বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) হটলাইন ১০৬–এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অর্থমন্ত্রী এ কথা বলেন। দুদকের মিডিয়া সেন্টারে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এ সময় দুদকের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, আমাদের রন্ধ্রে রন্ধ্রে দুর্নীতি আছে। এভাবে চলতে পারতো না, যদি না মানুষ ঘুষ না দেয়। দুর্নীতি দমন ও অপসারণে আমাদের শক্তিশালী একটি কমিটি আছে। আমাদের এই কমিশন অসম্ভব শক্তিশালী। আট থেকে ১০ বছরের মধ্যে সব ধরনের দুর্নীতি চলে যাবে।

অর্থমন্ত্রী বলেন, আমরা এখন সব ক্ষেত্রে প্রযুক্তির সঙ্গে জড়িয়ে গেছি। ফলে প্রযুক্তির মাধ্যমে দুর্নীতি রোধ করা সম্ভব। দুর্নীতি দমনের শ্রেষ্ঠ উপায় প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার। যে কোনো দুর্নীর তদন্ত করবেন ভালো করে। মনে রাখতে হবে, পাবলিক সার্ভিসে যা করা প্রয়োজন সেটাই করতে হবে। অতিরঞ্জিত কোনো কিছু করা যাবে না।

আগামী ১০ বছরের মধ্যে দুর্নীতির মাত্রা কমে আসবে বলেও আশা প্রকাশ করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

তিনি বলেন, ‘আমি আশাবাদী, আমার ধারণা আট থেকে ১০ বছর পর আজকে যে দুর্নীতি, এই অবস্থার একটি পরিবর্তন আসবে। সাধারণ মানুষেরও অবস্থার পরিবর্তন হচ্ছে। দুর্নীতি যে করতে হবে এরূপ মানসিকতার পরিবর্তন হচ্ছে।’

দুর্নীতি দমন কমিশনের আজকের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আরাে উপস্থিত ছিলেন, দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ, দুদক সচিব আবু মো. মোস্তফা কামাল প্রমুখ।