ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | সাদিকুর রহমান সাদী


তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়িব এরদোগান বলেছেন, মালাজগির্দ‌ের যুদ্ধে তুর্কিদের জয় বিশ্ব ইতিহাসের গতিপথকে বদলে দিয়েছিল।

আজ রবিবার মালাজগির্দ‌ যুদ্ধের ৯৪৮ বছর পূর্তি উপলক্ষে তুর্কি এক বিবৃতিতে একথা বলেন এরদোগান।

মালাজগির্দ‌ের যুদ্ধে সেলজুক তুর্কিরা বাইজেনটাইন সামাজ্যকে পরাভূত করেছিলো।

তিনি বলেন, মালাজগির্দ‌ের বিজয় আানাতোলিয়া অঞ্চলে ভ্রাতৃত্ব, সহনশীলতা ও সংহতির ভিত্তিতে একটি সভ্যতা গড়ে তোলার প্রথম ধাপ ছিলো।

এরদোগান বলেন, সেলজুক সুলতান আল্প আরসালান তাঁর জ্ঞানী ও মমতাময়ী ন্যায্য শাসনের কারণে তার পরবর্তী শাসকদের জন্য উদাহরণ হয়ে গিয়েছিলেন এবং তিনি তার পরবর্তী বহু শতাব্দী ধরে আনাতোলিয়ার ভূখণ্ডে বিরাজমান শান্তি, সহিষ্ণুতা ও প্রেমের ধারণার পথিকৃৎ ছিলেন।

তিনি আরো বলেন, এই শুভ বিজয়ের মধ্য দিয়ে আমাদের বীর পুরুষেরা আমাদের জন্য আনাতোলিয়ায় একটি চিরন্তন স্বাধীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে পৃথিবীর ইতিহাসে একটি নতুন মানচিত্র একেছেন। এবং একটি মহান সভ্যতা গড়ে তুলেছিলেন। যার উপর ভিত্তি করে তুর্কি প্রজাতন্ত্র উন্নতির শিখরে আরোহন করেছে।

এরদোগান জোর দিয়ে বলেন, আগামীতে প্রজাতন্ত্রকে আরো উজ্জ্বল করে তুলতে মালাজগির্দ‌ের বিজয়ের চেতনা একটি কম্পাস হিসেবে থাকবে।

বিবৃতিতে মালাজগির্দ‌ের বিজয় বার্ষিকীতে এরদোগান তুরস্কের জনগনকে অভিনন্দন জানান। এবং মহান নেতা আল্প আরসালান ও সকল শহীদদের মাগফেরাত কামনা করে চিরস্থায়ী রহমত আশা করেন।

উল্লেখ্য, ১০৭১ এ মালাজগির্দ‌ের যুদ্ধে সেলজুক সুলতান আল্প আরসালান কিছু অশ্বারোহী নিয়ে বাইজেন্টাইন সেনাবাহিনীকে পরাস্ত করে তুর্কিদের এশিয়া মাইনরে ছড়িয়ে দেওয়ার পথ উন্মুক্ত করেছিলন। যা এখন তুরস্ক নামে পরিচিত।

ঐতিহাসিকরা “মালাজগির্দ‌” এর যুদ্ধকে ইসলামী ইতিহাসের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ যুদ্ধ বলে মনে করেন।