গরীবের চাল, তেল আত্মসাৎকারীরা দেশ, জাতি ও মানবতার শত্রু : মুফতী ফয়জুল্লাহ


ইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মুফতী ফয়জুল্লাহ বলেছেন, করোনার মহা বিপর্যয়ের মধ্যেও যারা ত্রাণ সামগ্রী ও স্বল্পমূল্যের সরকারী চাল, তেল আত্মসাৎ ও চুরি করে গরিব, হতদরিদ্র এবং বেকার মানুষের হক মেরে খাচ্ছে এরা দেশ, জাতি ও মানবতার শত্রু। এ ধরনের মানুষরূপী পশুদের নিরাপদ থাকার কোনো অধিকার নেই। এরা কোন পদ পদবীতে থাকার অধিকারও সংরক্ষণ করে না। ঘৃণিত এই চোরদেরকে প্রকাশ্যে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।

আজ (১৬ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের প্রতি জনগণের আস্থা রয়েছে। তাই আমি মনে করি, সরকারী ত্রাণ সামগ্রী এবং স্বল্পমূল্যের চাল, ডাল, তেল সশস্ত্র বাহিনীর তত্ত্বাবধানে বিতরণ করলে হতদরিদ্র, অভাবী ও কর্মহীন মানুষেরা উপকৃত হবে এবং জনগণও স্বস্তিতে থাকবে।

মুফতী ফয়জুল্লাহ আরও বলেন, করোনা পরিস্থিতির সুযোগ নিয়ে যেসব অতি মুনাফালোভী ব্যবসায়ী নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দাম বাড়িয়েছেন, বাড়াচ্ছেন তাঁরা মারাত্মক সামাজিক ভাইরাস। এরা জনগণকে কোণঠাসা করে নিজেদের পকেট ভারি করছে। এই ভাইরাস প্রতিহত করে জাতিকে রক্ষা করতে হবে।

তিনি দেশবাসীর উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা কঠিন একটা সময় পার করছি, দেশ এখন সংকটময় মুহূর্তে। সামনে কী ঘটবে, তা একমাত্র আল্লাহই ভাল জানেন। এই দেশ আপনার আমার সবার। কারো আশায় বসে না থেকে আমাদের প্রত্যেককেই দায়িত্ব নিতে হবে। অসহায়, গরীব ও নিম্ন আয়ের মানুষের ঘরে ঘরে খাবার পৌঁছে দিতে হবে।

তিনি বলেন, ভোটের সময় মানুষের ঘরে ঘরে প্রচারপত্র ও ভোটার স্লিপ ইত্যাদি পৌঁছানো গেলে তবে সরকারি অনুদান কেন ঘরে ঘরে পৌঁছানো যাবে না। দেশের জনপ্রতিনিধিদের মনোভাব পরিবর্তন করতে হবে। দরিদ্র জনগোষ্ঠীর দ্বারে দ্বারে গিয়ে তাদের সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করতে হবে।