ঘূর্ণিঝড় বুলবুল, তিন জেলায় চারজনের মৃত্যু

November 10, 2019 নিজস্ব প্রতিনিধি

ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের তাণ্ডবে তিন জেলায় এক নারীসহ চারজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। এদের মধ্যে পটুয়াখালী ও খুলনায় ঘর এবং গাছচাপা পড়ে নারীসহ তিন জন ও সাতক্ষীরায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে একজন মারা যান।

শনিবার ( ৯ নভেম্বর) রাতে ও রবিবার সকালে পৃথক সময়ে এ ঘটনা ঘটে।

খুলনা আবহাওয়া অফিস জানায়, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের আঘাতে রবিবার সকাল ১০টার দিকে খুলনার দাকোপ উপজেলার দক্ষিণ দাকোপ গ্রামে ঘর চাপা পড়ে প্রমিলা মণ্ডল (৫২) নামে এক বৃদ্ধা নিহত হয়েছেন। নিহত প্রমিলা সুভাষ মণ্ডলের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানান, প্রমিলা মণ্ডল সাইক্লোন শেল্টার থেকে দক্ষিণ দাকোপ গ্রামের নিজ বাড়িতে প্রয়োজনীয় জিনিস নিতে আসেন। তিনি ঘরে ঢুকার পর শিরিষ ও নারকেল গাছ ঘরে উপর ভেঙে পড়লে ঘর চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই তিনি নিহত হন।

এদিকে, ঘূর্ণিঝড় বুলবুলের চার ঘণ্টার তাণ্ডবে খুলনার উপকূলীয় উপজেলা দাকোপ ও কয়রার দুই সহস্রাধিক কাঁচা ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত এবং গাছপালা লণ্ড-ভণ্ড হয়ে গেছে।

খুলনা জেলা কন্ট্রোল রুমের দায়িত্বরত কর্মকর্তা আজিজুল ইসলাম জানান, ঝড়ে কয়রা উপজেলায় দেড় সহস্রাধিক ও দাকোপ উপজেলায় তিন শতাধিকসহ খুলনা জেলায় দুই সহস্রাধিক কাঁচা ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে।

এছাড়া দিঘলীয়া উপজেলার সেনহাটির কাতানী পাড়ার আলমগীর হোসেন (৩৫) নামে এক ব্যক্তি গাছচাপা পড়ে মারা যান। রবিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।আলমগীর হোসেন ওই গ্রামের সফিউদ্দীন মিস্ত্রির ছেলে।

মির্জাগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শওকত আনোয়ার জানান, পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জের উত্তর রামপুরা গ্রামের হামেদ ফকির (৬০) গাছচাপা পড়ে মারা যায়।

এদিকে রবিবার সকাল ১১টার দিকে সাতক্ষীরায় দাবুড়া আশ্রয় কেন্দ্র থেকে বাড়ি ফেরার পথে আবুল কালাম নামে এক ব্যক্তি হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়।