চীনাদের ছুটি বাড়লে পদ্মা সেতুর কাজে সমস্যা হতে পারে: সেতুমন্ত্রী

ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২০ । নিজস্ব প্রতিনিধি

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, করোনা ভাইরাস নিয়ে উদ্ভূত পরিস্থিতি দুই মাসের বেশি প্রলম্বিত হলে পদ্মাসেতুর কাজের অগ্রগতিতে সমস্যা হতে পারে।

আজ (বুধবার) দুপুরে সেতু মন্ত্রণালয়ের অধীনে দপ্তর প্রধান এবং প্রকল্প পরিচালকদের নিয়ে চলমান উন্নয়ন প্রকল্পসমূহের অগ্রগতি পর্যালোচনা ও নাগরিক সেবা প্রদান বিষয়ক সভাশেষে তিনি এ কথা বলেন।

পদ্মা সেতুর অগ্রগতির বিষয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘সেতুর সব মিলিয়ে অগ্রগতি ৭৭ শতাংশ, মূল সেতু ৮৬ শতাংশ এবং ২৩টি স্প্যান বসেছে।’

প্রকল্পে চীনা নাগরিকদের পরিসংখ্যান দিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘এখানে চীনা নাগরিক বর্তমানে ৯৮০ জন কর্মরত রয়েছে। এর মধ্যে থেকে বাইরে (ছুটিতে) আছে ৩৩২। ছুটি থেকে ফিরে এসেছে ৩৩ জন। ৩৩ জনের মধ্যে আটজন কোয়ারেন্টাইন মুক্ত, বাকিরা কোয়ারেন্টাইনে আছে।’

কাদের আরো বলেন, ‘পদ্মা সেতুতে আগামী ২ মাসে যদি অচলাবস্থার (চীনের করোনাভাইরাস সংক্রান্ত) অবসান হয়, তবে আমাদের কোনো অসুবিধা হবে না। আমাদের কাজ চলবে। ১০ ফেব্রুয়ারি পদ্মা সেতুর ২৪ নম্বর স্প্যান বসতে যাচ্ছে। কাজ চলতে থাকবে যদি না এর ভেতরে নববর্ষ উপলক্ষে যারা চীনে ছুটিতে গেছেন তাদের ছুটি আরও প্রলম্বিত হয়। ছুটি প্রলম্বিত না হলে আগামী ২ মাসের মধ্যে পদ্মা সেতুর কাজের অগ্রগতির সংকট হবে না।’

বিকল্প ব্যবস্থা বিষয়ে তিনি বলেন, ‘যাদের সঙ্গে চুক্তি তাদের সঙ্গে বিকল্প ব্যবস্থা নিয়ে কথা হয়নি। মাস দুই-একের মধ্যে অসুবিধা হবে না। আমাদের স্প্যানতো বসছে। ২৩টি বসেছে ২৪ নম্বরটা বসবে আগামী ১০ তারিখে। কাজেই তাদের অনুপস্থিতি তেমন কোনো সমস্যা হবে না। সমস্যা হলে আড়াই তিন মাস পরে হতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘পদ্মাসেতুর কাজ চলছে৷ কোনো ধরনের অসুবিধা না হলে জুলাইয়ের মধ্যে সব কয়টি স্প্যান বসানোর পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। মেগা প্রকল্পের মধ্যে আমার মনে হয় সবচেয়ে বেশি অগ্রগতি হয়েছে পদ্মাসেতুতে।’

সেতুমন্ত্রী আরও বলেন, ‘আমরা আশা করছি আগামী মাসে ঢাকা-মাওয়া বাংলাদেশের প্রথম এক্সপ্রেস ওয়ের শুভ উদ্বোধন করা হবে। প্রধানমন্ত্রী নিজে উদ্বোধন করবেন। প্রধানমন্ত্রীর অফিসে সামারি পাঠানো হয়েছে। তিনি যখন সময় দেবেন তখন উদ্বোধন করা হবে। অ্যাপ্রোসের কাজ শেষ। ঢাকা থেকে ভাঙ্গা পর্যন্ত ৫৫ কিলোমিটারের কাজ শেষ। পদ্মার ওপার থেকে ভাঙ্গা পর্যন্ত উদ্বোধন হয়ে গেছে।’

সর্বশেষ সংবাদ