জাপান গার্ডেন সিটিতে কুরবানী নিষেধের প্রতিবাদ জানালেন আল্লামা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী

মুহাম্মদপুরের জাপান গার্ডেন সিটিতে কুরবানী নিষেধের ঘোষণায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের আমীর আল্লামা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী।

তিনি বলেন, কুরবানী ইসলামের একটি অন্যতম এবাদত, যা সামর্থবান মুসলমানদের উপর ওয়াজিব। হযরত ইবরাহীম আঃ আল্লাহ তা‘আলার হুকুম পলনার্থে নিজ পুত্র ইসমাঈলকে কুরবানী করতে ছুড়ি চালিয়ে আল্লাহর প্রতি বান্দার পূর্ণ আনুগত্য প্রকাশ করেছেন। এ ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে শত শত বছর যাবৎ মুসললমানগণ পশু কুরবানী করে আসছে। পূর্ণআনুগত্যের বহিঃপ্রকাশ কুরবানীর বিকল্প কোন এবাদত নেই।

আজ শনিবার (১১ জুলাই) রাজধানীর কামরাঙ্গীরচস্থ নিজ মাদরাসায় বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের নেতা-কর্মীসহ ওলামায়ে কেরামের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।

আল্লামা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী বলেন, ঈদুল আজহার দিন আল্লাহ তা’আলার কাছে সবচেয়ে পছন্দনীয় আমল হলো পশু কুরবানী। পশু কুরবানীর পরিবর্তে দান-সদকা বা অসহায়দের আর্থিক সহায়তা প্রদানে কুরবানীর ওয়াজিব আদায় হবে না। তিনি কারো কথায় বিভ্রান্ত না হয়ে মুসলমানদের উপর অর্পিত শরিয়তের হুকুম ওয়াজিব কুরবানীর পশু জবাইয়ের মাধ্যমে আল্লাহর হুকুম আদায় করার জন্য সকলের প্রতি আহবান জানান।


অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন, দলের মহাসচিব মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াযী, নায়েবে আমীর মাওলানা শেখ আজিমুদ্দিন, মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, মুফতি আব্দুল্লাহ ইয়াহইয়া, মাওলানা মোখলেছুর রহমান কাসেমী, মুফতি সুলতান মহিউদ্দীন, মাওলানা সানাউল্লাহ, মুফতী ওমর ফারুক, মুফতী আফম আকরাম হুসাইন ও মাওলানা আব্দুল্লাহ ইদরীস প্রমুখ।