টিভি দেখে তারাবিহ আদায় সম্পর্কে সাবের চৌধুরীর বক্তব্য শরীয়ত বিরোধী: মুফতি সুলতান মহিউদ্দিন

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা ও সাবেক এমপি সাবের হোসেন চৌধুরী কর্তৃক বিবিসি বাংলা ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া বক্তব্য “রমজানে তারাবিহ নামাজ মসজিদে না গিয়ে বাসায় আদায়ের ব্যবস্থা করতে মুসল্লীদের জন্য সরাসরি টেলিভিশনে তারাবিহ নামাজ সম্প্রচারের উদ্যোগ নেওয়া হবে, টেলিভিশন ফলো করে বাসায় নামাজ পড়বেন” এ বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মুফতি সুলতান মহিউদ্দিন।

শুক্রবার (২৪ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে সাবের হোসেন চৌধুরীর এ বক্তব্যের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তিনি।

বিবৃতিতে মুফতি সুলতান মহিউদ্দিন বলেন, সাবের হোসেন চৌধুরীর এ বক্তব্য সম্পূর্ণ শরীয়ত বিরোধী, যা ধর্ম সম্পর্কে অজ্ঞতার পরিচয় বহন করে। উনার এ বক্তব্য ইসলাম ও মুসলমানদের গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত নামাজকে নিয়ে চরম ধৃষ্টতা ও তামাশা করার শামীল। টেলিভিশন দেখে দেখে নামাজ পড়ার এ কাণ্ডজ্ঞানহীন বক্তব্য কোন মুসলমান মেনে নেবে না।

মুফতি সুলতান মহিউদ্দিন আরও বলেন, এত প্রবীণ একজন রাজনীতিবিদের কাছে এ ধরনের বক্তব্য জাতি কখনও আশা করেনি। সরকারকে বেকায়দায় ফেলতেই কারো ইশারায় তিনি বার বার এ ধরনের বক্তব্য দিয়ে জাতিকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছেন। অবিলম্বে শরীয়ত বিরোধী এ বিভ্রান্তিকর বক্তব্য প্রত্যাহার করতে হবে।

সাবের চৌধুরীকে উদ্যেশ্য করে তিনি বলেন, সৌদি সরকারকে এত অনুসরণ করতে মন চাইলে, সে দেশের চুরির শাস্তি হাত কাটার আইনের অনুসরণ করুন। ত্রাণের চাল চোরসহ সকল চোর-ডাকাত ও দুর্নীতিবাজদের আইনের আওতায় এনে উপযুক্ত বিচার করুন। তাহলে দেশে চুরি বন্ধ হবে, অসহায়-দুস্থ মানুষের ঘরে খাবার পৌছবে। এ অধিকার এবং ক্ষমতা আপনাদের রয়েছে, তারাবিহের নামাজ নিয়ে ফতোয়া দেওয়ার অধিকার আপনাদের নেই।