ট্রাম্পের জন্য দরজা খোলা; বিবিসির সাথে সাক্ষাৎকারে জানালেন শীর্ষ তালেবান নেতা

September 18, 2019

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | আন্তর্জাতিক ডেস্ক


মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প যদি ভবিষ্যতে শান্তি আলোচনা আবার শুরু করতে চান তবে তার জন্য দরজা খোলা আছে বলে জানিয়েছেন তালেবান শীর্ষ নেতা ও প্রধান মধ্যস্থতাকারী শের মোহাম্মদ আব্বাস।

বিবিসিকে দেওয়া এক বিশেষ সাক্ষাৎকারে এ কথা জানান। তিনি জোর দিয়ে বলেন, আলোচনাই এখন আফগানিস্তানে শান্তির একমাত্র উপায়।

আজ বুধবার বিবিসি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়।

তালেবানদের সঙ্গে শান্তি আলোচনা এখন একটা ‘মৃত ইস্যু’—গত সপ্তাহে ট্রাম্প এমন মন্তব্য করেন। তবে তালেবান শের মোহাম্মদ আব্বাসের বক্তব্য থেকে এটা পরিষ্কার যে, আলোচনা চালিয়ে যেতে তাঁরা আগ্রহী।

এর আগে চলতি মাসের শুরুতে ১৮-বছরের সংঘাতের অবসান ঘটাতে উভয় পক্ষ একটি চুক্তির দ্বারপ্রান্তে পৌঁছেছিল। এমনকি জ্যেষ্ঠ তালেবান নেতা ও আফগান প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানিকে গত ৮ সেপ্টেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্টের অবকাশনিবাস হিসেবে পরিচিত ক্যাম্প ডেভিডে বৈঠকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন ট্রাম্প।

তবে কাবুলের এক হামলার ঘটনাকে পুঁজি করে ডোনাল্ড ট্রাম্প বৈঠক বাতিল করে দেন।

গতকাল মঙ্গলবারের মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও সাম্প্রতিক তালেবান হামলার নিন্দা জানিয়ে এক বিবৃতিতে বলেন, অবশ্যই তাদের শান্তির প্রতি সত্যিকারের প্রতিশ্রুতি প্রদর্শন করতে হবে।

বিবিসিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে আমেরিকার উদ্বেগের বিষয়ে শের মোহাম্মদ আব্বাস বলেন, তালেবানেরা কোনো ভুল করেনি।

তিনি বলেন,  মার্কিনীরাই বলেছে হাজার হাজার তালেবানকে হত্যা করেছেন তারা। যদি একজন মার্কিন সেনা নিহত হন তবে তার অর্থ এই নয় যে, তাদের এই প্রতিক্রিয়া দেখানো উচিত। কারণ উভয় পক্ষই কোনো যুদ্ধবিরতিতে যায়নি।

শের মোহাম্মদ আব্বাস বলেন, আমাদের দিক দিয়ে আলোচনার জন্য দরজা খোলা। তাই আমরা আশা করব অপর পক্ষও আলোচনার বিষয়ে তাদের সিদ্ধান্তের পুনর্বিবেচনা করবেন।

শের মোহাম্মদ আব্বাস বলেন, আগামী ২৩ সেপ্টেম্বর দুই পক্ষের মধ্য আলোচনা শুরু হতো। এতে কোনা সমাধান বা কোনো চুক্তি হয়ে যেত পারত। যুদ্ধবিরতি নিয়ে আরও ব্যাপক আলোচনা হতো। তিনি এও নিশ্চিত করেন যে, শান্তি আলোচনায় সহায়তার জন্য রাশিয়া ও চীনের সঙ্গেও যোগাযোগ করেছে তালেবানরা।