ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | সাদিকুর রহমান সাদী


মিরপুরের উচ্চতর ইসলামী জ্ঞানচর্চাকেন্দ্র মারকাযুদ দিরাসাতিল ইসলামিয়া-ঢাকার পরিচালক মুফতী মামুন আব্দুল্লাহ কাসেমী বলেছেন, হাদীসে বর্ণিত ‘তালিবুলইলম’এর মর্যাদা পেতে হলে প্রত্যেক ছাত্রের কর্তব্য হলো, নিজের নিয়তকে পরিশুদ্ধ করা। নিয়ত ব্যতীত পরিশ্রমের মাধ্যমে অক্ষরজ্ঞান লাভ হলেও ‘তালিবুলইলম’এর আসল মর্যাদা কখনোই পাওয়া যাবে না। ফেরেশতাগণ ঐ সকল তালিবুলইলমদের পায়ের নিচে তাদের ডানা বিছিয়ে দেন যারা নিয়তকে পরিশুদ্ধ করে নিয়েছে।

আজ রবিবার (২৫ আগস্ট) মিরপুরের শেওড়াপাড়াস্থ মারকাযুদ দিরাসাতিল ইসলামিয়া-ঢাকায় অনুষ্ঠিত তরবিয়াতী মজলিসে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্য তিনি এসব কথা বলেন।

ইমাম বুখারী রহ. এর কথা নকল করে মুফতী মামুন কাসেমী বলেন,নিয়ত এতো গুরুত্বপূর্ণ যে, কাজের চেয়ে নিয়ত উত্তম। কেননা, সময়-সুযোগের অভাবে অনেকক্ষেত্রে কাজ না করতে পারলেও নিয়তকে পরিশুদ্ধ করার কারণে সাওয়াব লাভ হয়।

তিনি বলেন,ইমাম বুখারী রহ. তার কিতাবের শুরুতে ‘নিয়তের হাদীস’ উল্লেখ করেছেন তার একটি উদ্দেশ্য এটাও যে, পাঠক যেন আগে তার নিয়তকে পরিশুদ্ধ করে।

তিনি আরো বলেন, বড় আলেম হতে হলে জীবনের সকল উস্তাদকে আজীবন সম্মান করতে হবে। এমনকি ছোটবেলার সেই মক্তবের উস্তাদকেও।

বক্তৃতার একপর্যায়ে তরুণ প্রতিভাবান এই আলেম তার ছাত্রদেরকে সতর্ক করে বলেন,ভুলেও তোমরা কখনো উস্তাদের গীবত করবেনা। যারা কারো গীবত করে তাদের ভবিষ্যৎ শুধুই অন্ধকারে ঢাকা, যেখানে কিঞ্চিৎ পরিমাণ আলোও দেখা যায়না।

এক ঘন্টাব্যাপী এই তরবিয়াতী মজলিস যোহরের আযানের সময় শেষ হয়।