তোলপাড়: লকডাউনের মধ্যেই ঢাকা থেকে ট্রেন সিলেটে

দেশজুড়ে চলা লকডাউনের মধ্যেই ঢাকা থেকে প্রায় ৬০ জন যাত্রী নিয়ে একটি ট্রেন গতকাল শনিবার বিকেলে সিলেটে পৌঁছেছে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে সিলেট জেলাকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে আগেই। লকডাউন অবস্থায় সিলেটে প্রবেশ এবং সিলেট থেকে বাইরে যাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা আছে।

এ ছাড়া করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধে সারা দেশে রেল চলাচলও বন্ধ আছে। এই অবস্থায় প্রায় ৬০ জন যাত্রী নিয়ে ঢাকা থেকে দুটি বগিসহ আন্তনগর ট্রেন গতকাল বিকেলে সিলেট রেলস্টেশনে পৌঁছায়।

লকডাউনের মধ্যে যাত্রী নিয়ে ট্রেন চলাচল করায় প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। চলছে তুমুল সমালোচনা।

প্রত‌্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বিকেল ৫টা ১০ মিনিটে দুটি বগি নিয়ে সিলেট রেলস্টেশনে একটি ট্রেন এসে থামে। এ সময় ট্রেনের দুটি বগি থেকে প্রায় ৬০ জন যাত্রী স্টেশনে নামেন। যাত্রীদের মধ‌্য‌ে কয়েকজন রেলওয়ের কর্মী থাকলেও অধিকাংশ সাধারণ যাত্রী ছিলেন। তাঁরা ট্রেনটি স্টেশনে থামার সঙ্গে সঙ্গে নিজেদের মালামাল নিয়ে নেমে দ্রুত স্টেশন এলাকা ত‌্যাগ করেন।

সিলেট রেলস্টেশন কর্তৃপক্ষের দাবি, ঢাকার কমলাপুর স্টেশন থেকে রেলওয়ের কর্মীদের বেতনের টাকা নিয়ে কয়েকজন কর্মকর্তা সিলেটে এসেছেন।

সিলেটে লকডাউন অবস্থায় যাত্রী নিয়ে ট্রেন আসার খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান সিলেটের জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও ডেপুটি কালেক্টর মো. এরশাদ মিয়া।

তিনি বলেন, লকডাউন অবস্থায় ট্রেন আসছে—এটি জেলা প্রশাসনকে জানানো হয়নি। রেলওয়ের কর্মকর্তারা বলেছেন যে রেলের কর্মচারীদের বেতন নিয়ে কয়েকজন কর্মকর্তা সিলেট এসেছেন। তাঁদের হিসাবে চালক, নিরাপত্তকর্মীসহ মোট ২৪ জন ট্রেনে করে সিলেট আসার কথা। কিন্তু রেলস্টেশনের সিসিটিভি ফুটেজে দেখে প্রায় ৫৪ জন যাত্রীর হিসাব পেয়েছি। এ সংখ‌্যা বেশিও হতে পারে। এ ব‌্যাপারে স্টেশন ব‌্যবস্থাপককে জিজ্ঞেস করলে তিনি কোনো সদুত্তর দিতে পারেননি।

তিনি আরও বলেন, যাঁরা ঢাকা থেকে সিলেটে এসেছেন, তাঁরাই ট্রেনে অতিরিক্ত যাত্রী নিয়েছেন। এতে অবৈধভাবে কিছু লেনদেন হতে পারে। ঢাকা থেকে ওই ট্রেনে আসা রেলের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নাম, পদবি আমরা সংগ্রহ করেছি। গতকাল রাতেই ওই ২৪ জনের বিরুদ্ধে ব‌্যবস্থা নিতে সিলেটের জেলা প্রশাসক মন্ত্রণালয়ে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে।