দিনাজপুরে সড়ক অবরোধ করে ত্রাণের দাবিতে বিক্ষোভ

ত্রাণের দাবিতে দিনাজপুরে প্রায় ২ ঘণ্টা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন এলাকাবাসী। ফলে দিনাজপুরের সাথে বিরল ও বোচাগঞ্জ উপজেলার যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায়। পরে পুলিশ ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাদেরকে তালিকা করে ত্রাণ সহযোগিতা দেয়ার আশ্বাস দেওয়া হলে তারা অবরোধ তুলে নেয়।

বুধবার (২৯ এপ্রিল) সকাল ১০ টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত বিক্ষুদ্ধ নারী-পুরুষেরা জেলার সদর ও বিরল উপজেলার সংযোগস্থল পূর্ণভবা নদীর উপর কাঞ্চন ব্রীজে এই অবরোধ করেন।

স্থানীয়রা দাবি করেন, লকডাউনের কারণে রিকশা, ভ্যান, ফুটপাতের দোকান বন্ধসহ মজুরির কাজও নাই। তারা পরিবার পরিজন নিয়ে অর্ধাহারে ও অনাহারে রয়েছেন। সরকার করোনা প্রতিরোধে ঘরে থাকার কথা বলেছে ঘরে ঘরে খাওয়া পৌঁছে যাওয়ার কথা বলেছে। কিন্তু ঘরে ঘরে নয় বরং রাস্তায় নামার পরও ত্রাণ সহযোগিতা প্রদান করা হচ্ছে না। এই দাবিতে অবরোধের পাশাপাশি বিক্ষোভ করে স্থানীয়রা। পরে দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) সানিউল ফেরদৌস, সদর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহরিয়ার রহমানসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে তালিকা তৈরি করে ত্রাণ পৌঁছানোর ব্যবস্থা করা হবে বলে জানালে অবরোধ তুলে নেওয়া হয়।

দিনাজপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) সানিউল ফেরদৌস বলেন, এলাকার প্রত্যেককে ত্রাণ সহযোগিতা দেওয়া হবে। ইতিমধ্যেই তালিকা তৈরির কাজ চলছে, কাজ শেষ হওয়ার সাথে সাথেই ত্রাণ সহযোগিতাও পৌঁছে যাবে।