বাংলাদেশে করোনাভাইরাস পরীক্ষার হার বিশ্বে সর্বনিম্ন

খুবই পরিমাণে করোনাভাইরাস শনাক্ত পরীক্ষা (টেস্ট) করা হচ্ছে বাংলাদেশে।

সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) তথ্যানুযায়ী, গড়ে প্রায় এক লাখ ৪শ’ ৯৯জনের মধ্যে সন্দেহভাজন আক্রান্ত হিসেবে একজনকে টেস্ট করা হচ্ছে।

আইইডিসিআর-এর তথ্যানুযায়ী ১৬ কোটিরও বেশি জনসংখ্যার এই দেশে এখন পর্যন্ত ১,৬০২টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে সন্দেহভাজন আক্রান্ত ব্যক্তিদের শরীর থেকে।

কিন্তু পর্যাপ্ত পরিমাণ টেস্ট না করা হলে এই মহামারি বন্ধ করা সম্ভব হবে না বলে বারবার সতর্ক করে দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞরা।

তারা বলছেন, টেস্ট না করা হলে অবস্থার আসল চিত্র উঠে আসবে না।

করোনা টেস্ট নিয়ে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন সংস্থার জরিপে দেখা গেছে, যেখানে বাংলাদেশ লাখে মাত্র ১ জনের টেস্ট করছে, সেখানে অন্যান্য দেশে এই অনুপাত অনেক গুণ বেশি।

এদিকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) ডিরেক্টর জেনারেল ড. টেড্রোস অ্যাডহানোম ঘেব্রেয়েসাস বলেছেন, আপনি চোখ বেঁধে আগুনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে পারবেন না। তেমনি কে বা কারা আক্রান্ত তা না জেনে আমরা এই মহামারিকে বন্ধ করতে পারব না। সবগুলো দেশের প্রতি আমাদের সহজ বার্তা হলো- টেস্ট, টেস্ট, টেস্ট। প্রত্যেক সন্দেহভাজন আক্রান্তকে টেস্ট করুন।