পুত্র সন্তানের নাম ‘আবরার ফাহাদ’ রাখলেন র‍্যাব কর্মকর্তা

অক্টোবর ১০, ২০১৯ | অনলাইন ডেস্ক

বুয়েটছাত্র আবরার হত্যার ঘটনায় দেশজুড়ে চলছে প্রতিবাদ। এমন অবস্থায় এক র‍্যাব কর্মকর্তা তার নিজের সদ্য জন্ম নেয়া সন্তানের নাম রেখেছেন আবরার ফাহাদ।

বুধবার দুপুর সাড়ে ১২ টায় রাজধানীর একটি হাসপাতালে জন্ম নেয় পুলিশ বাহিনীর কনস্টেবল শামীম হাসানের প্রথম পুত্র সন্তান। বর্তমানে তিনি র‍্যাবে কর্মরত আছেন।

পুত্র সন্তান জন্ম নেয়ার পর কনস্টেবল শামীম ফেসবুক স্ট্যাটাসে লেখেন, আলহামদুলিল্লাহ, আল্লাহর অশেষ মেহেরবানিতে আজ (বুধবার) আমি পুত্র সন্তানের বাবা হলাম। মাশাআল্লাহ আমার সন্তানের নাম রেখেছি, এই মুহুর্তে সবার প্রিয় দেশের প্রথম ভাবনা শহীদ এর নামের প্রতি সম্মান রেখে ‘আবরার ফাহাদ।’

ইনশাআল্লাহ আমার সন্তানকে বর্তমান প্রচলিত পশ্চিমা উচ্চ ডিগ্রী এবং জঙ্গিবাদী ধর্মীয় মোল্লাদের থেকে দুরে রাখিয়া একজন দানশীল,গরীব দু:খী মানুষের সেবক হিসাবে সমাজের বুকে প্রতিষ্ঠিত করব। সবাই দোয়া করবেন মহান আল্লাহ যেন আমার নেক আশা কবুল করেন।


আবরার হত্যার ‘প্রতিবাদে’ শোক র‌্যালি করেছে ছাত্রলীগ

অক্টোবর ১০, ২০১৯


ভারত বাংলাদেশ চুক্তির সমালোচনা করায় ছাত্রলীগ নেতাদের হাতে নির্মমভাবে হত্যাকাণ্ডের শিকার বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদকে ‘পিটিয়ে হত্যা করার প্রতিবাদে’ শোক র‌্যালি করেছে ছাত্রলীগ।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় লেকচার থিয়েটার ভবনের সামনে শোক র‌্যালিতে অংশ নিয়ে এ হত্যাকাণ্ডের বিচার দ্রুততম সময়ের মধ্যে শেষ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন সংগঠনটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য। র‌্যালিটি ক্যাম্পাসের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।

আবরার হত্যার ঘটনায় ছাত্রলীগের বুয়েট শাখার সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান রাসেলসহ ১১ নেতাকর্মীকে স্থায়ী বহিষ্কার করা হয়েছে।

এ বিষয়ে প্রশ্নের উত্তরে ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় বলেন, এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে যারা জড়িত তাদের শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। শেখ হাসিনা ঘটনা শোনার সঙ্গে সঙ্গে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নিয়েছেন। আমরা আশাবাদী এ হত্যাকাণ্ডের বিচার দ্রুততম সময়ের মধ্যে শেষ হবে।

শোক র‌্যালিতে ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ও ঢাকা মহানগর ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।