বগুড়ায় শিশুসহ আরও ৭ জনের করোনা শনাক্ত

বগুড়ায় নতুন করে এক শিশু ও নারীসহ সাতজনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় ১২জন করোনা শনাক্ত হলেন।

বুধবার (২২ এপ্রিল) রাতে ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মুস্তাফিজুর রহমান তুহিন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বুধবার রাতে যাদের করোনা পজিটিভি বলে জানানো হয়েছে, তাদের মধ্যে নন্দীগ্রামের ১২ বছরের এক কন্যা শিশু ও শাজাহানপুরের ২৭ বছরের এক নারী রয়েছেন।

বাকি পাঁচজন পুরুষ। তাদের মধ্যে রয়েছেন বগুড়া শহরের সবুজবাগ এলাকার ৪০ বছরের এক বাসিন্দা ও সোনাতলা উপজেলার ৪৫ বছরের এক ব্যক্তি। এছাড়া সারিয়াকান্দিতে ২৮ বছরের ও ধুনটে ২২ বছরের এক যুবকের দেহে করোনা পাওয়া গেছে। অন্যজন ৬০ বছরের দুপচাঁচিয়ার বাসিন্দা।

এর আগে ২১ এপ্রিল রাতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজে করোনা পরীক্ষায় বগুড়ার সারিয়াকান্দি ও সোনাতলার এক নারীসহ তিনজন পজিটিভ আসেন। তারও আগে আদমদীঘি উপজেলার দু’জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়। করোনা শনাক্ত ওই পাঁচজনকে বগুড়া মোহাম্মদ আলী হাসপাতালের আইসোলেশন ইউনিটে রাখা হয়েছে।

প্রাণঘাতি করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি মোকাবিলায় এরই মধ্যে বগুড়াকে লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মুস্তাফিজুর রহমান রহমান তুহিন জানান, বগুড়া জিয়াউর রহমান মেডিকল কলেজে ২১ এপ্রিল যে তিনটি নমুনার পরীক্ষা পুনরায় করতে বলা হয়েছিল সেইগুলোও বুধবার পজিটিভ এসেছে।

তিনি জানান, ২০ এপ্রিল করোনা শনাক্তকরণ শুরু হওয়ার পর বুধবার পর্যন্ত মোট ৮৮টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে সাতটি পজিটিভ এসেছে। যাদের করোনা পজিটিভ এসেছে তাদের স্বাস্থ্য বিধি অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।